৯ মাসে হাফেজ হলো ৭ বছরের শিশু

মুহাম্মদ জিবরিল বিন নেছারীর বয়স মাত্র ৭ বছর। এই বয়সেই সে মাত্র ৯ মাসে পবিত্র কোরআন শরিফের হিফজ সম্পন্ন করেছে। বিশিষ্ট কারী ও হাফেজ নেছার আহমাদ আন-নাছিরীর তৃতীয় ছেলে জিবরিল।

শিশু হাফেজ মুহাম্মাদ জিবরিল বিন নেছারী রাজধানীর যাত্রাবাড়ীর মারকাজুত তাহফিজ ইন্টারন্যাশনাল মাদরাসার ছাত্র। তার বাবা শায়খ নেছার আহমাদ আন নাছিরী এই মাদরাসার প্রতিষ্ঠাতা ও পরিচালক।

ছেলের এই কৃতিত্বের কথা সংবাদমাধ্যমকে জানিয়ে শায়খ নেছার আহমাদ আন নাছিরী বলেন, আল্লাহ তায়ালার মেহেরবানিতে আমার তৃতীয় ছেলে মুহাম্মদ জিবরিল বিন নেছারী ৭ বছর বয়সে মাত্র ৯ মাসে সমস্ত কোরআন মুখস্ত করে হাফেজ হয়েছে। তার আগে আলহামদুলিল্লাহ আমার বড় ছেলে এবং মেজো ছেলে কোরআনের হাফেজ হয়েছে। বাবা হিসেবে এর চেয়ে বড় পাওয়া আর কিছু নেই।

জিবরিলের বাবা জানান, তার ছেলের শেষ সবক শুনেছেন এবং তাকে পাগড়ি পরিয়ে দিয়েছেন হাফেজ কারী মাওলানা বজলুল হক, হাফেজ কারী মাওলানা মুফতি মিজানুর রহমান, হাফেজ কারী মুহিব্বুল্লাহিল বাকী নদভী, হাফেজ কারী মাওলানা আবু ইউসুফ, হাফেজ কারী মাওলানা এ কে এম ফিরোজ, হাফেজ কারী মাওলানা এহসানুল হক জিলানী, হাফেজ কারী মাওলানা মহিউদ্দীন কাসেমসহ দেশবরেণ্য আলেম-উলামারা।

দোয়ার অনুষ্ঠানে উপস্থিত জাতীয় মসজিদ বায়তুল মোকাররমের চারজন ইমাম ও দেশবরেণ্য আলেম-উলামার সামনে যখন মুহাম্মদ জিবরিলকে প্রশ্ন করা হয়, জিবরিল তুমি ভবিষ্যতে কী হতে চাও? উত্তরে সে বলে, আমি আল্লাহওয়ালা হতে চাই। ছোট্ট জিবরিলের মুখ থেকে এ কথা শুনে সবাই অবাক হন এবং তার জন্য দোয়া করেন।