কানাডার নতুন গভর্নর জেনারেল জানেন না ফরাসী ভাষা

লিখেছেন মাহমুদুল হাসান রুবেল

কানাডার ৩০তম গভর্নর জেনারেল হিসেবে নিয়োগ পেয়েছেন মেরি সাইমন। যিনি দেশটির একজন আদিবাসী নারী। কানাডার ১৫৪ বছরের ইতিহাসে মেরি সাইমনই প্রথম আদিবাসী নারী যিনি এ পদে নিয়োগ পেয়েছেন। গত ৬ জুলাই প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো দেশটির ৩০তম গভর্নর জেনারেল হিসেবে মেরি সাইমনের নাম ঘোষণা করেন।
মেরিকে এ পদে নিয়োগ দেওয়ার জন্য প্রথমে সুপারিশ করেন কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো। পরে তার সুপারিশের প্রেক্ষাপটে কানাডার হেড অব স্টেট রানী দ্বিতীয় এলিজাবেথ গভর্নর জেনারেল হিসেবে মেরি সাইমনের নিয়োগ অনুমোদন করেন। পরে জাস্টিন ট্রুডো বলেন, কানাডার উচ্চপদে সাইমনের মতো আরও নেতার প্রয়োজন রয়েছে।
সাম্প্রতিক সময়ে আদিবাসী শিশুদের গণকবর বিষয় সামনে আসলে পুরো কানাডায় ব্যাপক প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হয়। “কানাডা ডে”-তে সারা দেশব্যাপী ব্যাপক বিক্ষোভ অনুষ্টিত হয়। রাজনীতিবিদ জাস্টিন ট্রুডোর চমক জাগানো সুপারিশে গভর্নর জেনারেলের এ নিয়োগ কানাডার শান্তিপ্রিয় মানুষদের আনন্দিত করে। মেরি সাইমনকে নিয়ে নতুন আরেক সমস্যা দেখা দিয়েছে। ৭৩ বয়সী এ নারী দুইটি ভাষা ইংরেজী ও ইরোকুওইয়ান জানলেও ফরাসী ভাষা জানেন না। এদিকে সাম্প্রতিক সময়ে কুইবেকের প্রাদেশিক সরকার কুইবেকে ফরাসী ভাষা বহুল প্রচলিত করার জন্য কঠিন এক বিল পাস করতে যাচ্ছে। যা ইংরেজী ভাষা-ভাষীদের সমস্যায় পড়তে হবে। তাই রাজনৈতিক বিশ্লেষকগণ এ সময়ে জাস্টিন ট্রুডোর ফরাসী ভাষা না জানা মেরি সাইমনের এ নিয়োগকে অন্যকিছু মনে করছেন। কুইবেকের ভাষা নিয়ে স্থানীয় রাজনীতিবিদদের একটা শিক্ষা দিলেন জাস্টিন ট্রুডো ? তা বলার এখন সময় না হলেও কুইবেকের রাজনীতিবিদরা এ নিয়ে এখনো চুপ আছেন। কারণ মেরি সাইমন কুইবেকের সর্বোচ্চ রাষ্ট্রীয় পদকে ভূষিত ব্যক্তি। তিনি কুইবেকের আদিবাসী জায়গার উপর নির্মিত হাইড্রো ড্যাম এর জন্য বিশাল ভূমিকা রাখেন। একই সাথে তিনি দীর্ঘদিন ডেনমার্কে নিয়োজিত ছিলেন কানাডার রাষ্ট্রদূত হিসেবে। তাই কুইবেক থেকে প্রকাশিত ফরাসীর ভাষার পত্রিকাগুলোও এখন পর্যন্ত মেরি সাইমনের ফরাসী ভাষা না জানা নিয়ে কঠোর কোন প্রতিবেদন কিংবা সংবাদ প্রকাশ করেনি। তবে অটোয়াস্থ অফিসিয়াল ল্যাঙ্গুয়েজ কমিশনে তার নিয়োগকে কেন্দ্র করে ৫৯ টি অভিযোগ করা হয়েছে। এ দিকে মেরি সাইমন ফরাসী ভাষা শেখার আগ্রহ প্রকাশ করেছেন ৭৩ বছর বয়সে। যিনি এতো বছর তা প্রয়োজনবোধ করেননি।

কানাডার রয়েল মিলিটারি কলেজের সহযোগী অধ্যাপক ও রাজনৈতিক বিশ্লেষক স্টিফেন শোয়েনার্ড বলেছেন, ‘জাস্টিন ট্রুডো সরকার ফরাসী ভাষা-ভাষীদের ”ইম্পসিবল পজিশন” এ ফেলে দিয়েছেন। কানাডার কনফেডারেশনে কেউ বিরোধী না। তবে কানাডার ফরাসী ভাষা-ভাষীরা ভালো করেই জানেন ভাষাগত সংখ্যালঘু এবং একই সাথে আধিবাসীদের ভাষাকে স্বীকৃতির দেয়ার প্রয়োজনীয়তা।’ একই সাথে স্টিফেন মনে করেন, নতুন গভর্নর জেনারেল যদি ফরাসী ও তার মাতৃভাষায় কথা বলেন এবং ইংরেজীতে একটা কথা না বললেও ইংরেজী ভাষা-ভাষীদের কিছু যায় আসবে না।
সবশেষে এটা বলা যায়, জাস্টিন ট্রুডো সরকার দারুণভাবে কুইবেকের প্রাদেশিক সরকারকে একটা শিক্ষা দিলেন। জাস্টিন ট্রুডো কিন্তু বলেছেন, কানাডার উচ্চপদে সাইমনের মতো আরও নেতার প্রয়োজন রয়েছে।