মওদুদ আহমদের মরদেহ আসছে বৃহস্পতিবার, দাফন কোম্পানীগঞ্জে

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদের মরদেহ বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা ছয়টায় বাংলাদেশ এয়ার লাইন্সের একটি ফ্লাইটে দেশে আসবে। এরপর রাজধানীতে কয়েকদফা জানাজা শেষে নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জের মানিকপুরে বাবা-মায়ের কবরের পাশে তাকে সমাহিত করা হবে। মঙ্গলবার রাতে গণমাধ্যমে পাঠানো এক ভিডিও বার্তায় এ কথা জানান বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। শোক বার্তায় তিনি বলেন, দেশের এই সংকটময় মুহূর্তে ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদের চলে যাওয়া নিঃসন্দেহে একটি অপূরণীয় শূন্যতা। আমি মনে করি এটা শুধু বিএনপি নয়, সমগ্র জাতি একটা অপূরণীয় ক্ষতি সম্মুখীন হলাম আমরা। তিনি একজন ভালো অভিভাবক, গুণী পার্লামেন্টিরিয়ান, সরকারের বিভিন্ন সময়ে গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব পালন করেছেন। বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দলের পক্ষ থেকে আমরা গভীর শোক প্রকাশ করছি এবং তার বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা করছে। তিনি আরও বলেন, সবচেয়ে বড় বিষয় হচ্ছে, ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ গণতন্ত্রকামী মানুষ ছিলেন।আমরা সবাই দেখেছি তিনি কথা বলতেন অত্যন্ত চমৎকার এবং মার্জিত হবে। তার বক্তব্যগুলো ছিল পরিশীলিত। আগামী ১৮ মার্চ সন্ধ্যা ছয়টায় বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের একটি ফ্লাইটে মওদুদ আহমদের মরদেহ দেশে আসবে। রাতে মরদেহ রাখা হবে ইউনাইটেড হাসপাতালে। আমরা আশা করছি শুক্রবারে পার্লামেন্টে তার একটা জানাজা আদায়ের অনুমতি পাব বলে আশা করছি। তারপর হাইকোর্ট এবং দলীয় কার্যালয়ের সামনে তার জানাজা অনুষ্ঠিত হবে। মওদুদ আহমদের শেষ ইচ্ছা অনুযায়ী নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জের মানিকপুরে পারিবারিক কবরস্থানে বাবা-মায়ের কবরের পাশে সমাহিত হবেন।