কারেকশনের আভাস পাওয়া যাচ্ছে মন্ট্রিয়ল রিয়েল এস্টেট মার্কেটে   

লিখেছেন রিয়েল্টর শিহাব উদ্দিন

২০১৪ সালের পর মন্ট্রিয়েল সিএমএ-তে সর্বোচ্চ প্রপার্টির লিস্টিং হয়েছে সদ্য সমাপ্ত মে মাসে। এর আগে জানুয়ারী থেকে এপ্রিল পর্যন্ত পরপর চার মাস বৃদ্ধি পেয়েছে লিস্টিং যা পূর্ববর্তী মাসের তুলনায় বেশী হলেও আগের বছরের একই সময়ের তুলনায় কম ছিল। মে মাসের লিস্টিং সংখ্যা একই সাথে পূর্ববর্তী মাস এবং গত বছরের মে মাসের তুলনায় বেশী হওয়াতে এটাকে মার্কেট ট্রেন্ডের পরিবর্তন হিসেবে মনে করা যেতে পারে।


বছরের এই পর্যায়ে এসে মন্ট্রিয়ল সিএমএ মার্কেটের ইনভেন্টরি ০.৩ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে, যা কিনা ২০১৫ সালের পর এই প্রথম। বিগত বছরের মে মাসে অ্যাক্টিভ প্রপার্টির পরিমাণ ছিল ১১,২৬৯ টি এবং ২০২২ সালের মে মাসে মার্কেটে অ্যাক্টিভ প্রপার্টির পরিমাণ কিছুটা বৃদ্ধি পেয়ে ১১,৩০৪ টি। চলতি বছরের মে মাস হচ্ছে ক্রমাগত মার্কেটে প্রপার্টি সাপ্লাই বৃদ্ধি পাওয়া পঞ্চম মাস।
তবে প্রপার্টি বিক্রির লেভেল ২০১৬ সালের ধারে-কাছেও নেই। মার্কেট কন্ডিশন যথেষ্ট টাইট থাকায় বিক্রেতারা এখনো সুবিধাজনক অবস্থানে রয়েছেন। এখনও অভারবিডিং অব্যাহত আছে, যা এ মুহূর্তে মন্ট্রিয়ল আইল্যান্ড থেকে এর আউটস্কার্ট এরিয়াগুলোতে অপেক্ষাকৃত তীব্রতর। লেনদেন কম হওয়ার প্রধান কারণ হচ্ছে প্রপার্টির প্রাইসের বৃদ্ধি এবং বর্ধিত ইন্টারেস্ট রেটের সম্মিলিত প্রভাব। ব্যাংক অফ কানাডার বেঞ্চ মার্ক ইন্টারেস্ট রেট বাড়ানোর ফলশ্রুতিতে মন্ট্রিয়ল এরিয়াতে বিদ্যমান প্রাইসে প্রপার্টি কিনে মর্টগেজ কোয়ালিফাই করা কিংবা কোনোভাবে কেনে মর্টগেজ চালিয়ে যাওয়া যে কারো জন্যই কঠিন হয়ে গেছে। ফলে আগামী কয়েক মাসে ওভারবিডিংয়ের পরিমাণ কমবে বলে ধারণা করা যায়।
রেসিডেন্সিয়াল ক্যাটাগরির সব প্রপার্টিতেই বেচাকেনা শ্লথ হয়েছে, যেখানে সিঙ্গেল প্রপার্টির বিক্রি কমেছে ৭ শতাংশ এবং কন্ডোমিনিয়ামের বিক্রি কমেছে ১০ শতাংশ। মাল্টিপ্লেক্স প্রপার্টির বিক্রি কমেছে সবচেয়ে বেশি (১৭%)।


বছরের শুরু থেকেই মিডিয়ান প্রাইসের ক্ষেত্রে কমতির আভাস পাওয়া যাচ্ছিল। এপ্রিল মাসে সিঙ্গেল প্রপার্টির মিডিয়ান প্রাইস যেখানে ছিল ৫৮০ হাজার ডলার, মে মাসে সেটা দাঁড়িয়েছে ৫৭৬ হাজার ডলার। গত বছরের জুনের পর এই প্রথম পরপর দুই মাসে মিডিয়ান প্রাইসের পতন ঘটল। অবশ্য প্রাইস লেভেলের ক্ষেত্রে ২০২১ সালের মে মাসের তুলনায় ১৬% বৃদ্ধি দেখা যাচ্ছে।
এদিকে মাল্টিপ্লেক্স প্রপার্টিগুলোর ক্ষেত্রে মিডিয়ান প্রাইসের পতন সবচেয়ে বেশি পরিলক্ষিত হচ্ছে বছরের শুরু থেকেই। এ ধরণের প্রপার্টিতে মে মাসের মিডিয়ান প্রাইস ছিল ৭৫০৯০০, যা এপ্রিল মাসের মিডিয়ান প্রাইসের (৭৮০০০০ ডলার) তুলনায় উল্লেখযোগ্যভাবে কম। পরপর মাসগুলোতে অনুরূপ দরপতন সর্বশেষ দেখা গিয়েছিল ২০১৬ সালে। যদিও ২০২১ সালের মে মাসের মিডিয়ান প্রাইসের তুলনায় বর্তমান মিডিয়ান প্রাইস প্রায় ৭% বেশি।
সার্বিক হিসেবে স্প্রিং মার্কেটে প্রপার্টির সংখ্যা এখনো অনেক অল্প। সরবরাহের অভাবে ইন্টারেস্ট বৃদ্ধি স্বত্তেও বলার মতো দাম দাম পড়েনি, উল্টো ব্যাপক বিডিং চলছে মন্ট্রিয়লের আউটস্কার্ট এরিয়া গুলিতে।

লেখকঃ প্রকৌশলী রিয়েল্টর শিহাব উদ্দিন 

(৫১৪) ৩৬৮-৯০০০, [email protected]