বিয়েবাড়ি : বাংলাদেশি বিয়ে নিয়ে অনুষ্ঠান

লিখেছেন গোপেন দেব
বিয়ে বাড়ি কথাটা মনে হলেই বাঙালির প্রাণে এক অন্যরকম অনুভূতি জেগে ওঠে।দৃষ্টিতে ভেসে ওঠে আত্মীয়স্বজন, নাইওরী, পাড়া প্রতিবেশিদের সমাবেশে মুখরিত একটি বাড়ি।আনন্দ,উল্লাস।নানা কাজে বাড়ির প্রতিটি মানুষের দৌড়ঝাঁপ।বাড়ির সামনে রঙ্গিন তোরণ তৈরিতে পাড়ার যুবকদলের ব্যস্ততা। সানাইয়ের সুর।বিয়ের গান, হলুদ বাটা,ধামাইল।আল্পনা আঁকা।সে এক অনাবিল উৎসবের ছাপ পড়ে বাড়ির প্রতিটি অংশে।বিয়েবাড়ির এই চিত্রটি বাঙালির সমৃদ্ধ সংষ্কৃতি, কৃষ্টিকেই ধারণ করে।

আর শাশ্বত বাংলার প্রাচীন এই সংষ্কৃতিকে তোলে ধরার লক্ষ্যেই ‘বিয়েবাড়ি’ নামে একটি ব্যতিক্রমী উৎসব অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। মন্ট্রিয়ল শহর থেকে ৬৯ কিলোমিটার দূরে আগামি ২৪ জুন শুক্রবার সরকারি ছুটির দিন এটি অনুষ্ঠিত হবে। বাঙালি সমাজে বিয়েকে কেন্দ্র করে বাড়িঘর যেরূপে সাজে, যেসব অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়, যেসব কর্মতৎপরতা পরিলক্ষিত হয় – যথাসাধ্য সেসবই প্রতিফলিত হবে সেখানে।গ্রামবাংলার বিয়ের ঐতিহ্যকে ফুটিয়ে তোলার লক্ষ্যে বাড়িটিকে সাজানো হবে বিয়েবাড়ির আদলে।বিয়ের গেইট,কুন্জ, আলোক-সজ্জা, প্রতীকি বাসরঘর, বিবাহ/শাদি পর্ব থেকে শুরু করে ধামাইল, বিয়ের গান, নাচ অর্থাৎ বিয়ের সব ইভেন্ট থাকবে ঐ বিয়েবাড়ির অনুষ্ঠানে। অনুষ্ঠানটির মূল উদ্যোক্তা সুধা হালদার এসব তথ্য জানিয়ে বলেছে, প্রবাসে নতুন প্রজন্মকে বাঙালির শেকড় সংষ্কৃতির সাথে পরিচয় করে দেয়াই এই উদ্যোগের আসল উদ্দেশ্য। সুধা আরো জানায়, কানাডার বহুজাতিক সমাজে নিজনিজ সংষ্কৃতিকে প্রায় প্রতিটি কমিউনিটি তোলে ধরার চেষ্টা করে।এখানে ভারতীয়রা শাদি শো করে, গ্রীক, ইটালিয়ান ও আরো অনেকেই করে। কিন্তু বাঙালি সমাজের বিয়ের অনুষ্ঠানটি যে একটি অসাধারণ আনন্দঘন উৎসব তা’ নিয়ে এখানে কখনও কিছু হয়নি। তাই বিয়েবাড়ি নামে এটি তাদের নতুন চিন্তাধারার অনুষ্ঠান কানাডায় ।
যেখানে বিয়েবাড়ির অনুষ্ঠানটি হতে যাচ্ছে সে জায়গাটি যেন সবুজের সমারোহে আর পাখির কলতানে মুখর একটি বাগান বাড়ি।
বিয়েবাড়ি অনুষ্ঠানের সাথে সংশ্লিষ্টরা জানিয়েছেন, সেখানে দুপুর ১২টা থেকে শুরু হয়ে একটানা অনুষ্ঠান চলবে রাত ৯টা পর্যন্ত। বাংলাদেশে চিরকালীন ঐতিহ্য মতে বিয়েবাড়িতে যেসব অনুষ্ঠান হয় সেগুলো ছাড়াও সেখানে থাকবে মেলা, নাচ, গান, বনভোজন। পাশাপাশি শহর থেকে একটু দূরে কোলাহল মুক্ত পরিবেশে সময় কাটানোর অবকাশও হবে বলে আশা করছেন সেখানে যেতে আগ্রহী অনেকেই। মূল উদ্যোক্তার অন্যতম সহযোগিতাকারী ও উৎসাহদাতা তরুণ সংগঠক সোহেল মিয়ার ধারণা, বাঙালির ঐতিহ্যগত বিয়ে-অনুষ্ঠান নিয়ে কানাডায় কোনো উৎসব এটিই প্রথম। এখানে জন্ম নেয়া ও বেড়ে ওঠা প্রজন্মকে বিয়েবাড়ির আড়ম্বরতা দেখানো, শেখানো উচিত বড়দের। তাদের পূর্বপুরুষদের যে একটি উন্নত ও উজ্জ্বল সংষ্কৃতি ছিল নতুন প্রজন্ম না হলে জানবে কী করে। ভালোবাসবে কী করে – এই মন্তব্য করে সোহেল মিয়ার অনুরোধ, নতুন এই কনসেপ্টটি নিয়ে এগিয়ে আসা সুধাকে সকলের সহযোগিতা করা একান্ত দরকার।
এদিকে আয়োজকদের পক্ষ থেকে ইতোমধ্যেই অনুষ্ঠানের বিস্তারিত কর্মসূচি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম সহ নানাভাবে প্রচার করা হয়েছে। স্থানীয় জনপ্রিয় শিল্পীরা ছাড়াও সেখানে বিশেষ অতিথি শিল্পী হিসেবে বাদশা বুলবুলের নাম ঘোষণা করা হয়েছে। খাবারদাবারের স্টলও থাকবে। থাকবে স্যাটল বাসের সুবিধা। স্যাটল বাস প্লামন্ডন ও মন্ক মেট্রো স্টেশনের সামনে থেকে ছেড়ে যাবে সকাল ১০টায়। আয়োজক থেকে বলা হয়েছে, স্যাটল বাস সহ অনুষ্ঠানের এন্ট্রি ফি ২৫ ডলার। লিমিটেড ক্যাপাসিটি থাকায় টিকেট সবাইকে আগেই কিনতে হবে, অনুষ্ঠান স্থলে টিকিট বিক্রি করা হবে না। তারা জানায়, ১২ বছরের নীচে শিশুর জন্যে ফ্রি। টিকেটের জন্যে সুধা : 514- 945-0649, Suhel : 514- 823-2673, Sukumar : 514-577-0211, Shilpy : 514-264-0184 নাম্বারে যোগাযোগ করতে অনুরোধ করা হয়েছে।
অনুষ্ঠান স্থলের ঠিকানা হচ্ছে, Auberge Halder, 549 CH Sainte Marguerite,
Sainte Margueite-du-lac-Masson, Quebec, J0T-1L0.
Highway 15N, Exit 69 ( Near St. Adèle )
আয়োজকদের পক্ষ থেকে অনুষ্ঠানটি সফল করে তোলার লক্ষ্যে সকলের সহযোগিতা কামনা করা হয়েছে।