যথাযোগ্য মর্যাদায় বাংলাদেশ কনস্যুলেট জেনারেল টরন্টোতে মহান শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালন

যথাযোগ্য মর্যাদায় বাংলাদেশ কনস্যুলেট জেনারেল টরন্টোতে মহান শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালন করা হয়। স্থানীয় সময় ২০ ফেব্রুয়ারি রাত ১২:০১ মিনিট ডেন্টোনিয়া পার্কে স্থাপিত শহীদ মিনারে পুস্পস্তবক অর্পণের মধ্য দিয়ে দিবসটির কর্মসূচী’র শুরু হয়। এর পর বাংলাদেশ হাউজে সকালে জাতীয় সংগীতের মধ্য দিয়ে কনসাল জেনারেল জনাব মোঃ লুৎফুর রহমান এবং কনস্যুলেট জেনারেল এর সহকর্মীবৃন্দ কর্তৃক জাতীয় পতাকা উত্তোলন এবং অর্ধনমিত করা হয়। পরে কনস্যুলেট প্রাঙ্গনে বিশদ কর্মসূচী পালন করা হয়। যাতে নীরবতা পালন, ভার্চুয়াল শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণ, মহামান্য রাষ্ট্রপতি, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, মাননীয় পররাষ্ট্র মন্ত্রী এবং মাননীয় পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীর বাণী পাঠ, ভাষা আন্দোলন সম্পর্কিত একটি তথ্যচিত্র প্রদর্শন, আলোচনা এবং সংক্ষিপ্ত সাংস্কৃতিক উপস্থাপনা অন্তর্ভুক্ত ছিল।

কনসাল জেনারেল জনাব মোঃ লুৎফুর রহমান তাঁর বক্তব্যে ভাষা আন্দোলন হতে শুরু করে বাংলাদেশের স্বাধীনতা অর্জন পর্যন্ত জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ঐন্দ্রজালিক নেতৃত্বের বর্ণনা দেন। তিনি বলেন- বঙ্গবন্ধু এই জাতিকে (বাঙ্গালিকে) ভাষার অধিকার থেকে থেকে শুরু করে স্বাধীনতার লাল সূর্য পর্যন্ত উপহার দিয়ে গেছেন। কনসাল জেনারেল শ্রদ্ধাবনত চিত্তে ভাষা শহীদদের অমূল্য ত্যাগের কথা স্মরণ করেন। তিনি মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে উদ্ধৃত করে সকলকে সঠিকভাবে বাংলা লিখা, শেখা এবং বলার আহ্বান জানান, যা হবে ভাষা শহীদদের প্রতি যথাযথ সম্মান প্রদর্শন। সবশেষে, কনসাল জেনারেল মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে বাংলাদেশের অদম্য উন্নয়ন অভিযাত্রার বিবরন তুলে ধরে সকলকে জাতির পিতার ‘সোনার বাংলা’ বিনির্মাণে অবদান রাখার আহ্বান জানান।

সর্বশেষে শেষে ভাষা শহীদ, বীর মুক্তিযোদ্ধা, বঙ্গবন্ধু ও তাঁর পরিবারের পরলোকগত সদস্যদের রুহের মাগফিরাত কামনা করে বিশেষ মোনাজাত করা হয়।