মন্ত্রী ইমরান আহমদকে অবাঞ্ছিত ঘোষণার হুমকি আওয়ামী লীগ নেতার

ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে নৌকার প্রার্থীর পক্ষে প্রচারে গিয়ে সিলেট-৩ আসনের সংসদ সদস্য এবং প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী ইমরান আহমদকে অবাঞ্ছিত ঘোষণার হুমকি দিয়ে আলোচনার জন্ম দিয়েছেন সিলেটের কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সংগঠনিক সম্পাদক শামীম আহমদ। গত শুক্রবার উপজেলার ইসলামপুর পশ্চিম ইউনিয়ন পরিষদে নৌকার প্রার্থী আলকাছ আলীর সমর্থনে আয়োজিত সমাবেশে এ ঘোষণা দেন তিনি। এক দিন পর শনিবার থেকে ভিডিওটি ভাইরাল হলে তোলপাড় শুরু হয়।

ভিডিওতে দেখা গেছে, সভায় শামীম আহমদ বলছেন, ‘ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে নৌকায় ভোট দিলে মন্ত্রী ইমরান আহমদের সঙ্গে আলোচনা করে কোম্পানীগঞ্জের সকল পাথর কোয়ারি খুলে দেওয়া হবে।

যদি মন্ত্রী পাথর কোয়ারি খুলে না দেন তাহলে সবাই মিলে মন্ত্রীকে কোম্পানীগঞ্জ অবাঞ্ছিত ঘোষণা করব। ’

এসময় সভায় উপস্থিত ছিলেন সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি শফিফুর রহমান চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক নাসির উদ্দিন খান, উপজেলা যুব লীগের যুগ্ম আহ্বায়ক আব্দুর রহমানসহ জেলা ও উপজেলা আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

এ বিষয়ে জানতে যোগাযোগ করা হলে শামীম আহমদ বিষয়টি অস্বীকার করেন।

তিনি বলেন, ‘আমি অবাঞ্ছিত করার কথা বলিনি। আমি বলেছি নৌকায় ভোট দিলে উন্নয়ন হবে। তাই আওয়ামী লীগের প্রার্থীকে জয়যুক্ত করতে হবে। ’ ভিডিওতে অবাঞ্ছিত করার বিষয়টি ভাইরাল হয়েছে জানালেও তিনি তা সঠিক নয় বলে দাবি করতে থাকেন।

নিজের ফেসবুকে পোস্ট দিয়ে এর জন্য ক্ষমা চান তিনি। পোস্টে তিনি লেখেন-

আচ্ছালামু আলাইকুম

সম্মানিত কোম্পানীগঞ্জ উপজেলাবাসী আপনাদের অবগতির জন্য জানাচ্ছি যে, গতকাল নৌকা মার্কার সমর্থনে নির্বাচনী জনসভায় আমার বক্তব্যে ভুলক্রমে একটি কথা চলে আসছে যাহা সম্প‍ূর্ণভাবে আমার অনিচ্ছায়, এজন্যই আমি আন্তরিকভাবে দুঃখিত এবং আপনাদের কাছে বিনীত অনুরোধ করছি আপনারা আমার এই ভুল বক্তব্যকে ভুল হিসেবে বিবেচনা করবেন।