বীর মুক্তিযোদ্ধা জিয়াকে অস্বীকার করার সিদ্ধান্ত দেশের মানুষ গ্রহণ করবেনা- কানাডা বি এন পি

প্রেস বিজ্ঞপ্তি :-  কানাডা বিএনপি আয়োজিত “সাবেক রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের ‘বীর উত্তম’ খেতাব বাতিলের সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে  ভার্চুয়াল প্রতিবাদ সভা  অনুষ্ঠিত হয় মঙ্গলবার  রাত ৮ টায় কানাডা সময় !! ভার্চুয়াল প্রতিবাদ সভায় বক্তারা বলেন, এটি মুক্তিযুদ্ধ ও মুক্তিযোদ্ধাদের চরম অবমাননার শামিল এবং জিয়াউর রহমানের বীরত্বপূর্ণ অবদানের জন্য পাওয়া খেতাব বাতিলের অধিকার কারও নেই বলে মন্তব্য করেন ।কানাডা বিএনপির নেতারা জিয়াউর রহমানকে ‘স্বাধীনতার ঘোষক’ বলে দাবি করেন! সভায় বক্তারা আরো বলেন, “জামুকা যে প্রস্তাব এনেছে তা দুর্ভাগ্যজনক। যদি এ ধরণের সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত হয় তা হলে এটা হবে মুক্তিযুদ্ধ ও মুক্তিযোদ্ধাদের প্রতি চরম অবমাননার শামিল!! প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমান ২৬শে মার্চ ১৯৭১ তারিখ সকালে পাকিস্তান সেনাবাহিনী থেকে বিদ্রোহ করেছেন ও কালুরঘাট থেকে স্বাধীনতার ডাক দিয়েছেন। দেশে বিদেশে সবার তা জানা । কেউ তা অস্বীকার করতে পারবেনা। প্রথম সশস্ত্র মুক্তিযুদ্ধের সূচনা করেন এবং পাকিস্তানীদের বিরুদ্ধে প্রথম প্রতিরোধ গড়ে তোলেন জিয়াউর  রহমান মুক্তিযুদ্ধের একজন সেক্টর কমান্ডার এবং জেড ফোর্সেরও কমান্ডার ছিলেন।এখন ৫০ বছর পর যদি বীর মুক্তিযোদ্ধা জিয়াকে অস্বীকার করার সিদ্ধান্ত নেয়া হয় তাহলে তা দেশের মানুষ গ্রহণ করবেনা ।
সভায়  উপস্থিত ছিলেন সাবেক বাংলাদেশ এসোসিয়েশন অব টরন্টো, অন্টারিও এর সাবেক সভাপতি মাহবুব রব চোধূরী, বাংলাদেশী ইঞ্জিনিয়ার্স অন্টারিও এর প্রেসিডেন্ট ইঞ্জিনিয়ার মোহাম্মদ রেজাউর রহমান, , ভোরের আলো পত্রিকার প্রকাশক রেশাদ চৌধুরী, সাবেক কানাডা বি এন পির সভানেত্রী মালিহা মনছুর, বাংলাদেশ এসোসিয়েশন অব টরন্টো, অন্টারিও এর সভাপতি জাকির খান, বাংলাদেশ সোসাইটির সাবেক সভাপতি সৈয়দ তপন মাহমুদ, বি এন পি নেতা ডা. সিরাজুল হক চৌধুরী, ড. শিবলী নোমানী, শেখ এনামুল কবির , নূরুল ইসলাম, এম এ তারেক , মাশরুল হুসাইন রিপন  প্রমুখ
ভার্চুয়াল প্রতিবাদ সভায় সভাপতিত্ব করেন কানাডা ভোরের আলো পত্রিকার সম্পাদক আহাদ খন্দকার, সঞ্চালনায় ছিলেন সাপ্তাহিক নবদ্বীপ নিউজ এর সম্পাদক এম এইচ মামুন !! সভায় সিদ্ধান্ত হয় ভাষা শহীদের স্মরণে ভার্চুয়াল আলোচনা সভা হবে  তারিখ: ২0/০২/২০২১ শনিবার রাত ১০টায় !! সবাইকে উপস্থিত থাকার জন্য অনুরোধ জানানো হয় !!