সাধারণ ঘরের ছেলের সঙ্গেই মেয়ের বিয়ে মেনে নিলেন জাপানের ক্রাউন পিন্স

জাপানের ক্রাউন প্রিন্স ফুমিহিতো অবশেষে তার রাজকুমারী কন্যা মাকোর বিয়ে এক সাধারণ ছেলের সঙ্গেই মেনে নিলেন।

তবে রাজপরিবারের বাইরে কাউকে বিয়ের করার জন্য রাজকুমারী তকমা হারাতে হচ্ছে মাকোকে। ফলে তিনি আর রাজকুমারীর মর্যাদা পাবেন না।

কারণ জাপানের রাজপরিবার আইন ১৯৪৭ অনুসারে, রাজকন্যারা সাধারণ ব্যক্তিকে বিয়ে করলে রাজপরিবার ছাড়তে হয়। আর জাপানের আইন অনুযায়ী, রাজপরিবারের নারী সদস্যরা সাধারণ কোনো মানুষকে বিয়ে করলে রাজকীয় উপাধি ত্যাগ করতে হয়।

বিশ্ববিদ্যালয় পড়ুয়া প্রেমিক কেই কোমুরোর সঙ্গে ২০১৮ সালে বিয়ে হওয়ার কথা ছিল রাজকুমারী মাকোর। কিন্তু পরে জানিয়ে দেয়া হয় ২০২০ সাল পর্যন্ত তাদের বিয়ের প্রস্তুতি স্থগিত করা হয়েছে। দীর্ঘদিন পর ক্রাউন প্রিন্স রাজি হওয়ায় এখন বিয়েতে তাদের আর বাধা রইলো না।

গত সোমবার নিজের আসন্ন ৫৫ তম জন্মদিন উপলক্ষে টোকিওতে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে ক্রাউন প্রিন্স ফুমিহিতো এই দম্পতির বিয়ে মেনে নেয়ার ঘোষণা দেন।

তিনি বলেন, আমি তাদের বিয়ে করার অনুমোদন দিয়েছি। সংবিধান বলেছে যে, বিয়ে কেবল উভয় লিঙ্গের পারস্পরিক সম্মতির ভিত্তিতেই করা উচিত। যদি তারা সত্যই এটি চায় তবে আমি মনে করি পিতামাতা হিসাবে তা সম্মান করা দরকার।

তবে আমার দৃষ্টিকোণ থেকে আমি মনে করি, তাদের এই বিয়েতে অনেকেই সন্তুষ্ট নয়।

ক্রাউন প্রিন্স আরও জানান, তিনি বিশ্বাস করেন, রাজকন্যা মাকোও জানে বিয়ের জন্য সে পর্যাপ্ত জনসমর্থন অর্জন করতে পারেনি। সূত্র: কিওদো নিউজ, বিবিসি