সুভুনকম থানাভনসা পেলেন লাখ ডলারের সাহিত্য পুরস্কার


সাহিত্যক্ষেত্রে কানাডার বেশ কয়েকটি পুরস্কার রয়েছে। কবিতার জন্য পঁয়ষট্টি হাজার ডলার মূল্যের গ্রিফিন পুরস্কার, শ্রেষ্ঠ উপন্যাসের জন্য পঞ্চাশ হাজার ডলার মূল্যের রাইটার্স ট্রাস্ট পুরস্কার, ইংরেজি ও ফরাসি ভাষায় রচিত সাহিত্যের জন্য প্রতিটি পঁচিশ হাজার করে মোট চৌদ্দটি গভর্নর জেনারেল পুরস্কার। যে পুরস্কারটি গত দুই দশক জুড়ে সাহিত্যামোদীদের কাছে বিপুল আলোচনার বিষয় হয়েছে সেটি হলো এক লাখ ডলার মূল্যের স্কোশিয়া ব্যাংক গিলার পুরস্কার। দুই মাস অপেক্ষা শেষে গতকাল ৯ নভেম্বর টরন্টোর সময় সন্ধ্যায় ভার্চুয়াল এক অনুষ্ঠানে এ পুরস্কারের জন্য টরন্টোর সাহিত্যিক সুুভনকম থানাভনসার নাম ঘোষণা করা হয়। তিনি পাবেন এক লাখ ডলার। যে গ্রন্থের জন্যে তিনি এই পুরস্কার পেলেন তার নাম, ‘হাও টু প্রোনাউন্স নাইফ’ (কীভাবে নাইফ উচ্চারণ করতে হয়)। উল্লেখ করা যেতে পারে যে, সংক্ষিপ্ত তালিকার বাকি চার সদস্যের প্রত্যেকে পাবেন দশ হাজার ডলার করে।
থাইলান্ডের এক রিফিউজি ক্যাম্পে ১৯৭৮ সালে জন্ম নেওয়া সুুভনকম তার ইএসএল ক্লাসের উল্লেখ করে বলেন, “ছত্রিশ বছর আগে আমি নাইফ শব্দটি ঠিকভাবে উচ্চারণ করতে না পারায় একটি পুরস্কার থেকে বঞ্চিত হয়েছিলাম। কিন্তু আজ আমি পেলাম।”
সুুভনকম থানাভনসার নাম ঘোষণা করেন গতবছরের গিলার বিজয়ী লেখক আয়ান উইলিয়ামস। বলে রাখা যেতে পারে, কানাডার বহুল আকাঙ্ক্ষিত এই সাহিত্য পুরস্কারের জন্যে এবার জমা পড়েছিল ১১৮টি বই।