কানাডার যেসব প্রদেশে বাড়ছে করোনার প্রকোপ

কানাডার তিনটি প্রধান অন্টারিও, ব্রিটিশ কলাম্বিয়া এবং আলবার্টা প্রদেশসহ অন্যান্য প্রদেশেও প্রতিদিনই করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বৃদ্ধি পাচ্ছে। প্রদেশগুলোর নীতি নির্ধারকরা কার্যকর পদক্ষেপের পাশাপাশি সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে মুখে মাস্ক ব্যবহার করারও আহ্বান জানিয়েছেন।

অন্যদিকে অন্টারিও প্রদেশের তিনটি প্রধান অঞ্চল টরন্টো, অটোয়া এবং পিল রিজিওনের জন্য সীমাবদ্ধতা জোরদার করা হয়েছে। শনিবার ২৮ দিনের জন্য কার্যকর হওয়া পদক্ষেপগুলির মধ্যে রেস্তোরাঁ ও বারগুলির ভেতরে খাওয়া দাওয়া নিষিদ্ধ করা এবং জিম, সিনেমা থিয়েটার এবং ক্যাসিনো বন্ধ করা হয়েছে।

এরপরে, প্রদেশের স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা ব্যবস্থাগুলি পর্যালোচনা করবেন। বৃহত্তম প্রদেশ অন্টারিওতে ১০ জনের বেশি সমাবেশ করা নিষিদ্ধ করা হয়েছে। এই নিয়মের অধীনে প্রদেশে কোথাও ঘরে ১০ এবং বাইরে ২৫ জনের বেশি সমাগম করা যাবে না।

শুক্রবার এক সংবাদ সম্মেলনে অন্টারিওর প্রিমিয়ার ডগ ফোর্ড বলেন, ‘সমস্ত প্রবণতা ভুল পথে চলেছে’, মহামারি ‘উদ্বেগজনক হারে’ দ্রুতগতিতে বেড়ে চলেছে।

তিনি বলেন, যদি বর্তমান প্রবণতা অব্যাহত থাকে তবে ৩০ দিনেরও কম সময়ের মধ্যে হাসপাতালগুলিতে নিবিড় পরিচর্যা ইউনিট প্লেসমেন্টগুলি ট্রিপল হতে পারে।

এদিকে কানাডার টরন্টোতে মহামারির প্রথম ধাপের সংক্রমণের হারকেও ছাড়িয়ে যেতে পারে বলে সতর্ক করেছেন টরন্টো সিটির শীর্ষ চিকিৎসক আইলিন ডি ভিলা।

আগামী কয়েক সপ্তাহের মধ্যে টরন্টোতে করোনা সংক্রমণ বেড়ে যাবে। তিনি হুঁশিয়ারি দেন ভাইরাসের বিস্তার নিয়ন্ত্রণে নতুন বিধিনিষেধ আরোপ না করলে এই শীতে পরিস্থিতি আরো খারাপ হতে পারে।

সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী, কানাডায় করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা ১ লাখ ৭৮ হাজার ১১৭ জন, মৃত্যুবরণ করেছেন ৯ হাজার ৫ শত ৮৫ জন এবং সুস্থ হয়েছেন ১ লাখ ৪৯ হাজার ৫২৪ জন।                        আহসান রাজীব বুলবুল, কানাডা