প্রধানমন্ত্রীর ছবি ব্যবহার করে চরম অপমানজনক শব্দ ব্যবহার করল ভারতীয় গণমাধ্যম

ইলিয়াস মাহমুদ নিরব

বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীর ছবি ব্যবহার করে ভারতের জনপ্রিয় গণমাধ্যম “জি২৪” নিউজ করেছে “স্বল্পোন্নত” বাংলাদেশকে চীন “খয়রাতির”!! টাকা দিচ্ছে!

চরম অপমানজনক এমন শব্দ শুধু “জি২৪”ই করেনি। পশ্চিমবাংলার সবচেয়ে পুরাতন, সবচেয়ে প্রভাবশালী “অানন্দবাজার” পত্রিকাও একই শব্দ ব্যবহার করেছে।

এতে বুঝাযায় তারা প্লান পরিকল্পনা করেই এমন সংবাদ ছড়াচ্ছে।

ভারতের একমাত্র প্রতিবেশী বাংলাদেশ যাকে হাজারবার বঞ্চিত করলেও দাদা দাদা করে। হাজারবার অপমান করলেও “গুরু গুরু ” করে।

এই “নমনম নীতি” বাংলাদেশ জনগনের বৃহৎ অংশটি কোনদিন করেনি। যারা করে বা করেছে তারা এর মূল্যায়ন পাবে।

বাংলাদেশকে ভারত “খয়রাতি ” বলে যে বাণিজ্যের দিকে ইংগিত করেছে এই খয়রাতি পাওয়ার জন্য ভারতের বর্তমান প্রধানমন্ত্রী অারবদেশের শায়েখদের “পা” ধরে ছালামও করেছে, প্রটোকল ভেঙে, রাষ্ট্রীয় রীতিনীতি বিসর্জন দেয়ার ইতিহাসও অাছে।

কথা শুনে মনে হয় “ভুতের মুখে রাম নাম”।

ভারত বাংলাদেশ থেকে সেই ৭২ থেকে যা নিয়েছে তার বিনিময়ে দিয়েছে কতটুকু? হিসেব মিলানোর সময় এসেছে।

যে বাণিজ্য সুবিধা ইন্ডিয়া বাংলাদেশ থেকে নেয় তার কানাকড়িওকি দেয়??

অথচ ভারতের প্রতিবেশী দেশের মধ্যে এক বাংলাদেশ ছাড়া তাদের অাপন বলতে, কাছের বলতে কেউ নাই।

তো অাজ যদি বাংলাদেশকে সেই বাণিজ্য সুবিধা চীন দেয় সে নিবে না কেন?

চীন ৯৭% শুল্কমুক্ত প্রবেশিধিকার দিচ্ছে বাংলাদেশী পণ্যের।

এটা বিশাল ব্যাপার বাংলাদেশের জন্য। বাংলাদেশের অর্থনীতির জন্য। ভারত দিলে অবশ্যই বাংলাদেশ ভারত থেকে নিতো কিন্তু তারা তো কিছু দিতে শিখেনি শুধু নিতে অার খেতে শিখেছে। যার জন্য ছোট্ট দেশ নেপালকেও হারিয়েছে যেই নেপালকে তারা মনে করতো নিজের দেশ!!

ভারত সব সময়ই বাংলাদেশের সাথে অসম বাণিজ্যিক সুবিধা নিয়েছে।

অথচ পৃথিবীর এত দেশ থাকতে ভারতের দ্বীতিয় বৃহত্তম রেমিট্যান্স যায় ” স্বল্পোন্নত”!! খয়রাতির” বাংলাদেশ থেকে! কল্পনা করতে পারেন??

যেই বাংলাদেশকে তারা খয়রাতি বলছে সেই বাংলাদেশ থেকে তাদের খয়রাত করে চলতে হয়! সেই বাংলাদেশের খয়রাতির লোকজনের টাকায় চলে ইন্ডিয়ার হাসপাতাল, হোটেল, রেস্টুরেন্ট,।

করোনার লকডাউন না খেয়ে মরতে বসেছে ভারতের সেসব ব্যবসা প্রতিষ্ঠানগুলো।

১০০ কোটি মানুষের মধ্যে যাদের ৫০ কোটিকে এখন পর্যন্ত রাস্তায় টয়লেট করানো থেকে সরাতে পারেনি তাদের মুখ থেকে এমন শব্দ অাসাটা খুবই বেমানান।

একটা প্রশ্ন ভারত কেন তার প্রতিবেশি কোন রাষ্ট্রের সাথে সুসম্পর্ক গড়ে তুলতে পারে নি??

লেখক: সাংবাদিক