নিউ ইয়র্কে স্টেট অ্যাসেম্বলি নির্বাচনে বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত জামিলা

নিউ ইয়র্কে আগামী ২৩ জুন মঙ্গলবার অনুষ্ঠিতব্য ডেমোক্র্যাটিক প্রাইমারী নির্বাচনে স্টেট অ্যাসেম্বলি ডিস্ট্রিক্ট ২৪ (কুইন্স)’র কমিটিওম্যান প্রার্থী বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত জামিলা আক্তার উদ্দিন সকলের দোয়া কামনা করেছেন।

দক্ষিণ এশীয় প্রবাসীদের অধিকার প্রতিষ্ঠার সংগঠন অ্যাসাল’র প্রতিষ্ঠাতা প্রেসিডেন্ট প্রখ্যাত লেবার ইউনিয়ন লিডার মাফ মিসবাহ উদ্দিন এবং নিউ ইয়র্ক সিটি ভোটার এসিস্ট্যান্ট কমিশনার মাজেদা এ উদ্দিনের কন্যা তরুণ নেত্রী বাংলাদেশি-আমেরিকান জামিলা আক্তার উদ্দিন।

নিউ ইয়র্কের ব্রঙ্কসে জন্মগ্রহণকারী বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত জামিলা উদ্দিন ব্রঙ্কসের পার্কচেস্টারের ১০৬ পাবলিক স্কুল হয়ে সিটি ইউনিভার্সিটি অব নিউ ইয়র্কের জন জে কলেজ থেকে গ্র্যাজুয়েশন করেছেন। ব্রুকলিন কলেজ থেকে আরবান প্ল্যানিং নিয়ে এমবিএ করেছেন।

 

জামিলা উচ্চ শিক্ষা গ্রহণ শেষে ২০১২ সালে প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে বারাক ওবামার ইয়ুথ কো-অর্ডিনেটর, ২০১৩ সালে নিউ ইয়র্ক সিটি মেয়র নির্বাচনে জন ল্যু’র সাউথ এশিয়ান ডিরেক্টর, ২০১৬ সালের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে হিলারী ক্লিনটনের ফিল্ড ডিরেক্টরের দায়িত্ব পালন করেছেন। ২০১৯ সালে ডেমোক্র্যাটিক পার্টির নিউ ইয়র্ক সিটির ডিরেক্টরের দায়িত্ব পালন করেন। এর আগে তিনি ডোনোভান রিচার্ডসের ক্যাম্পেইন পরামর্শক ছিলেন।

বর্তমানে তিনি কুইন্স এ্যাসেম্বলি ডিস্ট্রিক্ট-৩৫ এর এ্যাসেম্বলিম্যান জেফ অর্বের ক্যাম্পেইন ম্যানেজারের দায়িত্ব পালন করছেন। যুক্তরাষ্ট্রে জন্মগ্রহণকারী প্রথম কোনও বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত হিসেবে ক্যাম্পেইন ম্যানেজারের দায়িত্ব পালন করছেন জামিলা উদ্দিন। তিনি বর্তমানে অ্যাসাল জাতীয় কমিটির অ্যাসোসিয়েট পলিটিক্যাল অ্যাকশন ডিরেক্টর হিসাবে দায়িত্ব পালন করছেন।

তিনি প্রথম থেকেই অ্যাসাল’র ইয়ুথ ডিরেক্টর ছিলেন। ওই সময় তিনি ফ্লোরিডায় নিহত ট্রেভর মার্টিনের সমর্থনে সমাবেশ করেছিলেন। বর্তমানে চলমান ‘ব্ল্যাক লাইভস ম্যাটার’ আন্দোলনেরও একজন সক্রিয় সংগঠক জামিলা।

ডেমোক্র্যাটিক পার্টির নিউ ইয়র্ক সিটির ডিরেক্টরসহ বিভিন্ন দায়িত্ব পালনকালে ভাষা-বর্ণ-গোত্র নির্বিশেষে সকল মানুষের সাথে সুসম্পর্ক আগে থেকেই গড়ে ওঠে জামিলার। প্রথম দক্ষিণ এশীয় হিসেবে স্টেট এ্যাসেম্বলি ডিস্ট্রিক্ট-২৪ এর কমিটিওম্যান পদে মাঠ চষে বেড়াচ্ছেন জামিলা উদ্দিন। তাকে সমর্থন দিয়েছে কুইন্স কাউন্টি ডেমোক্র্যাটিক পার্টি। সমর্থন দিয়েছে ‘এলায়েন্স অব সাউথ এশিয়ান-আমেরিকান লেবার’-অ্যাসালও।

দুই বছর মেয়াদী এ কমিটিওম্যান পদে জয়ী হতে পারলে নিউ ইয়র্ক স্টেটের দলীয় প্রার্থীদের নির্বাচনী প্রচারণার ব্যয়-ভার মনিটরিংয়ের দায়িত্ব বর্তাবে জামিলার ওপর। দায়িত্ব থাকবে দলকে সুসংগঠিত করার পাশাপাশি ডেমোক্র্যাটিক পার্টির জাতীয় কমিটির মেম্বার বাছাইয়েরও। এছাড়া দলের পক্ষ থেকে যোগ্য প্রার্থীদের সমর্থনদানের গুরুদায়িত্বটিও থাকবে তার ওপর।

জামিলা উদ্দিন জানান, তার নির্বাচনী এলাকায় (জ্যামাইকা এস্টেটস, অউবারডেল, হোলিসউড, বেলরোজ, ডগলাস্টন, লিটল নেক, গ্লেন ওকস, ফ্লোরাল পার্ক এবং বেইসাইড) বাংলাদেশি, ভারতীয়, জ্যামাইকান, চায়নিজ এবং শ্বেতাঙ্গের আধিক্য রয়েছে। তার নির্বাচনী এলাকার সকলের অকুণ্ঠ সমর্থন পাচ্ছেন তিনি। নির্বাচিত হলে বাংলাদেশিসহ সকলের অধিকার আদায়ে অগ্রণী ভূমিকা রাখবেন তিনি।

জামিলা ২২ শে জুন পর্যন্ত আর্লি ভোট না দিয়ে থাকলে আগামী ২৩ শে জুন মঙ্গলবার সকাল ৬টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত তাকে ভোট দেওয়ার জন্য অনুরোধ করেন।