আটকের সময় আদিবাসী নেতাকে মারধর, কানাডা জুড়ে ক্ষোভ

তিন মাস আগে আদিবাসী এক নেতাকে আটকের সময় তাকে মারধরের একটি ভিডিও প্রকাশিত হওয়ার পর কানাডায় পুলিশের আচরণ নিয়ে ক্ষোভ বাড়ছে। আলবার্টার ফোর্ট ম্যাকমারিতে গত ১০ মার্চ রয়েল কানাডিয়ান মাউন্টেড পুলিশের (আরসিএমপি) এক সদস্য আদিবাসী অ্যালান অ্যাডামকে আটকের সময় তাকে মাটিতে ফেলে একের পর এক ঘুসি মারেন।

পুলিশের গাড়িতে থাকা ক্যামেরায় পুরো ঘটনাটি রেকর্ড হয়। বৃহস্পতিবার রাতে রয়েল কানাডিয়ান মাউন্টেড পুলিশ রেকর্ডটি প্রকাশ করে বলে বিবিসির এক প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে। ভিডিওটি দেখে স্তম্ভিত হয়ে গেছেন জানিয়ে এ ঘটনার ‘শেষ দেখে ছাড়বেন’ বলে মন্তব্য করেছেন কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো।

মিনিয়েপোলিসে পুলিশ হেফাজতে এক কৃষ্ণাঙ্গ ব্যক্তির মৃত্যুর ঘটনাকে কেন্দ্র করে যুক্তরাষ্ট্র জুড়ে যে বর্ণবাদবিরোধী আন্দোলন চলছে, তার সমর্থনে কানাডার বিভিন্ন শহরে হওয়া কর্মসূচিগুলোতে আদিবাসীদের ওপর নিপীড়ন বন্ধের দাবি উঠেছে। যুক্তরাষ্ট্রের মতো কানাডার আন্দোলনকারীরাও পুলিশ বাহিনীর সংস্কার চাইছেন।

বৃহস্পতিবার ভিডিও প্রকাশের আগে আলবার্টা আরসিএমপি জানিয়েছে, তারা আটকের সময় আদিবাসী নেতাকে মারধরের ঘটনাটি খতিয়ে দেখেছে। যে পুলিশ সদস্যের বিরুদ্ধে মারধরের অভিযোগ উঠেছে, তার কার্যক্রমকে ‘যুক্তিসংগত’ বলেও অভিহিত করেছে তারা।