গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকায় মিরাবেল এয়ারপোর্ট

মন্ট্রিয়ল ব্যুরো : কোভিড-১৯ এর কারণে কানাডার সাথে বলা যায় পুরো বিশ্বের যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন। যাত্রীবাহী কিছু বিমান সরকারের অনুমতি সাপেক্ষে চলাচল করছে। তবে সাপ্লাই চেইন ঠিক রাখার জন্য কার্গো বিমান সারাবিশ্বে চলাচল করছে। কুইবেকের মিরাবেল এয়ারপোর্ট ২০০৮ সালের পর থেকে কার্গো বিমানবন্দর হিসেবে ব্যবহৃত হয়ে আসছে। ডিএইচএল এক্সপ্রেস, কানাডিয়ান কার্গোজেট, ফেডেক্স, পিউরেলেটর, ইউপিএস আন্তর্জাতিক এক্সিট হিসেবে এই এয়ারপোর্ট ব্যবহার করছে। এছাড়া কানাডিয়ান প্রতিষ্ঠান কার্গোজেট পুরো কানাডার সব প্রদেশেই কুইবেক থেকে মিরাবেল এয়ারপোর্ট এর মাধ্যমে ফ্লাইট পরিচালনা করে আসছে। প্রতিদিন এই এয়ারপোর্ট এর মাধ্যমে কয়েক লক্ষ শিপমেন্ট আমদানী ও রপ্তানী হয়।

মিরাবেল এয়ারপোর্ট এ সাপ্তাহিক ভোরের আলো’র মন্ট্রিয়ল ব্যুরো প্রধান মাহমুদুল হাসান রুবেল ডিএইচএল এক্সপ্রেস এর ডেঞ্জারাস গুডস সুপারভাইজার এবং কার্গো এয়ারক্রাফট লোড প্লানার হিসেবে ২০১৫ সাল থেকে কাজ করে আসছেন। বর্তমান পরিস্থিতি নিয়ে তিনি জানান, গত বছরের তুলনায় এ বছর শিপমেন্ট এর পরিমাণ দ্বিগুনের চেয়ে বেশি আমদানী ও রপ্তানী হচ্ছে। ইনবাউন্ড এ আমরা প্রতিদিন ৩০ হাজারের উপর শিপমেন্ট গ্রহণ করছি। আউটবাউন্ডে ১১ হাজার থেকে ১৩ হাজার শিপমেন্ট মিরাবেল এয়ারপোর্ট থেকে যাচ্ছে। ডিএইচএল এক্সপ্রেস মিরাবেল এয়ারপোর্ট এর মাধ্যমে মন্ট্রিয়ল, কুইবেক সিটি, অটোয়া, নভো স্কশিয়া, নিউ ফাইন্ডল্যান্ড এন্ড ল্যাভাডর, নিউ ব্রন্সউইক এর শিপমেন্ট প্রসেস করে থাকি। এ সিটি এবং প্রদেশগুলোর ডেঞ্জারাস গুডস ইন্সপেক্টরের দায়িত্বের পাশাপাশি আমি এয়ারক্রাফট লোড প্লান করে থাকি। বর্তমানে আমরা প্রচুর ল্যাবের জন্য ব্যবহার করা হবে এমন টিউবস এক্সপোর্ট করছি। অনেক দেশে কানাডায় তৈরি ব্যাটারি পাওয়ারড মেডিক্যাল ইকুপমেন্ট পাঠাচ্ছি। সারাবিশ্বে কানাডিয়ানরা আটকে আছেন। তাদের প্রেসক্রাইভ মেডিসিন আমরা নির্ধারিত সময়ের মধ্যে পাঠাতে বদ্ধপরিকর । এ জন্য আমাকে প্রতিদিন ১২ ঘন্টার মতো কাজ করে যেতে হচ্ছে। এমনকি প্রতি রবিবার যুক্তরাষ্ট্রের সিনসিনাত্তি থেকে একটি ফ্লাইট আসে মিরাবেল এ। সে ফ্লাইটটি রিসিভসহ আবার লোড প্লান করে পাঠাতে হয়। বলা যায় কঠিন এক সময় পার করছি। তবে খারাপ লাগছে না। মনে হচ্ছে ইতিহাসের একটা অংশ হয়ে আছি।

মাহমুদুল হাসান রুবেল আরো জানান, আমার স্ত্রী স্বাস্থ্য কর্মী হিসেবে কাজ করছেন এবং আমার ২৩ মাসের ছেলের ডে কেয়ার না থাকায় আমাদেরকে পালাক্রমে তাকে দেখে রাখতে হয়। আতংকিত হলেও অভ্যস্থ হয়ে গেছি গত এক মাসে।

এদিকে কুইবেক সরকারের বিভিন্ন মেডিক্যাল সাপ্লাই পরিবহণ করছে কার্গোজেট। অ্যামাজন কানাডার শিপমেন্টও কার্গোজেট পরিবহণ করে যাচ্ছে। এয়ারটাইম এক্সপ্রেস, এটিসি কার্গো ডিএইচএল এর এয়ার ক্যাপাসিটি সেলস এর সুযোগ নিয়ে বিশ্বের বিভিন্ন দেশে কানাডিয়ান পণ্য রপ্তানী করছে। পিউরেলেটর কানাডা এবং কুইবেকের গ্লোবেক্স কোম্পানী ডিএইচএল এর নেটওয়ার্ক ব্যবহার করছে। বর্তমানে মিরাবেল এয়ারপোর্ট লকডাউন বহিরাগতদের জন্য। কেবলমাত্র কর্মরতরা প্রবেশ করতে পারছেন।