করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা গেলেন গার্দিওলার মা

বৈশ্বিক মহামারি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে পৃথিবী থেকে বিদায় নিয়েছেন সাবেক বার্সেলোনা ও বর্তমান ম্যানচেস্টার সিটি ম্যানেজার পেপ গার্দিওলার মা দোলোরস সালা ক্যারিও। বার্সেলোনার মানসেরায় ৮২ বছর বয়সে তিনি ইহলোকের মায়া ত্যাগ করেছেন। এক বিবৃতিতে তার মৃত্যু সংবাদ নিশ্চিত করেছে ম্যান সিটি কর্তৃপক্ষ।

বিবৃতিতে ম্যানচেস্টার সিটি জানিয়েছে, ‘মানরেসায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে পেপের মা দোলোরস সালা ক্যারিওর মৃত্যু হওয়ার খবরটি শুনে আমরা ম্যানচেস্টার সিটি পরিবার মানসিকভাবে বিধ্বস্ত। তার বয়স হয়েছিল ৮২ বছর। এই ভীষণ কষ্টের সময়ে পেপ, তার পরিবার এবং তাদের সমস্ত বন্ধুর প্রতি গভীর সমবেদনা জানাচ্ছে এই ক্লাবের সঙ্গে জড়িত সবাই।’

পেপের মায়ের মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করেছে তাদের চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ক্লাব ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডও। টুইট করে তারা লিখেছে, ‘এই ভয়ানক সংবাদটি শুনে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের প্রত্যেকে দুঃখ পেয়েছেন। আমরা পেপ এবং তার পরিবারের প্রতি আন্তরিক সমবেদনা জানাচ্ছি।’

সমবেদনা জানিয়েছে সিটিজেনদের আরেক প্রতিপক্ষ লিভারপুলও, ‘লিভারপুল এফসির প্রত্যেকের পক্ষ থেকে গভীর সমবেদনা। এই মুহুর্তে পেপ এবং তার পরিবারের প্রতি আন্তরিক সহানুভূতি।’

মারা যাওয়ার আগে পেপ ছাড়া আরও দুই মেয়ে ও এক ছেলে (পেরে গার্দিওলা, যিনি একজন ফুটবল এজেন্ট) রেখে গেছেন দোলোরস। জীবিত থাকাকালে অবশ্য ছেলে পেপের দারুণ সফলতা দেখতে পেয়েছেন তিনি। বিশেষ করে, বার্সেলোনার হয়ে এক বছরে ছয়টি শিরোপার অনন্য অর্জন। বার্সার পর বায়ার্ন মিউনিখ ও ম্যানচেস্টার সিটিতেও পেপের সফলতা দেখেছেন তিনি।

গত মাসেই করোনাভাইরাস আক্রান্তদের সাহায্যার্থে বার্সেলোনার আনহেল সোলার দানিয়েল ফাউন্ডেশনে এক মিলিয়ন ইউরো দান করেছেন গার্দিওলা। মূলত, চিকিৎসকদের স্থানীয় একটি কলেজে গেছে দানের এই অর্থ। তার আর্থিক সহায়তা দিয়ে চিকিৎসা সামগ্রী কেনা হয়। এছাড়া বর্তমান ক্লাবের পক্ষ থেকে করোনাভাইরাস থেকে মুক্ত থাকতে সবাইকে ঘরে থাকার আহ্বান জানিয়ে সচেতনতামূলক ভিডিও প্রকাশ করেছিলেন তিনি।