দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে ছাড়াছাড়ি, টিভি শোয়ের দৌলতে ৭৮ বছর পর খুঁজে পেলেন হারানো বোনকে!

ভাবতেই পারেননি আর কখনও দেখা পাবেন হারানো বোনের। হাত ছেড়ে যাওয়ার পর কেটে গেছে প্রায় আট দশক। হারিয়ে যাওয়া বোন আদৌ এখনও বেঁচে আছে কিনা, তাও জানা ছিল না। কিন্তু অবিশ্বাস্য হলেও দেখা হল দুই বোনের। হারিয়ে যাওয়ার ৭৮ বছর পর!

৭৮ বছর পর ফিরে পাওয়া ছোট বোনকে দেখে আনন্দে দিশেহারা বড় বোন। ১৯৩৯ সাল থেকে শুরু হয়েছিল দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ। ১৯৪২ সালে জার্মানি আক্রমণ করে রাশিয়াকে। সেই সময় বিচ্ছেদ ঘটেছিলো দুই বোনের। রাশিয়ার স্ট্যালিনগ্রাদকে কেন্দ্র করে শুরু হয়েছিল দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ।

১৯১৯ সালে জন্মেছিলেন বড় বোন রোজালিনা আর ১৯২৮ সালে জন্ম হয়েছিল ছোট বোন ইউলিয়ার। সেই ভয়াবহ পরিস্থিতিতে রোজালিনাকে উদ্ধার করেছিল কারখানার এক শ্রমিক। সে সময়ের মতো প্রাণে বেঁচে যান রোজালিনা। তবে ছোট বোন ইউলিয়াকে হারিয়ে ফেলেন চিরতরে।

মাস খানেক আগে একটি টিভি শো আর পুলিশের তৎপরতায় ৭৮ বছর পর আবার দেখা হল দুই বোনের। স্থানীয় এক টিভি শোতে ছোট বোন ইউলিয়ার মেয়ে এসে দ্বিতীয় বিশ্ব যুদ্ধের অভিজ্ঞতা জানানোর পাশাপাশি হারিয়ে যাওয়া মাসি রোজালিনার কথাও উল্লেখ করেন। টিভিতে নিজের নাম ও বোনের গল্প শুনে চিনতে পারে বোনকে। মনে পরে যায় ছোট বেলার সেই ভয়াবহ দিনগুলির কথা। ফিরে পেতে ইচ্ছে করে ছোট বোনকে।

৭৮ বছর পেরিয়ে বর্তমানে দুই বোনেরই শরীর বয়সের ভারে ঝুঁকে পড়েছে। কমে এসেছে হাঁটা চলার গতি। তবু হারানো বোনকে ফিরে পাওয়ার আশায় যেন অদ্ভুত প্রাণশক্তি জুটিয়েছিল দুই বোনকে।

ওই টিভি শো-এর নাম উল্লেখ করে পুলিশের সাহায্য চান রোজালিনা। শেষমেষ পুলিশের তৎপরতায় ছোট বোনকে খুঁজে পান রোজোলিনা। বোনকে খুঁজে পেয়ে তিনি ধন্যবাদ জানিয়েছেন পুলিশ আর টিভি চ্যানেলকে। ৭৮ বছর পর দুই বোনকে মেলাতে পেরে আনন্দিত পুলিশ আর ওই টিভি চ্যানেল কর্তৃপক্ষ। দুই বোনকে মেলানোয় পুলিশ আর ওই টিভি চ্যানেল কর্তৃপক্ষের এই আন্তরিক উদ্যোগের প্রশংসায় মুখর সোশ্যাল মিডিয়ার বিভিন্ন প্ল্যাটফর্ম।