করোনার ভয়ে ওমরাহ স্থগিত করল সৌদি!

বিশ্বব্যাপী আতঙ্ক ছড়িয়েছে করোনা ভাইরাস। এই ভাইরাসটি যাতে ছড়িয়ে না পড়ে এ জন্য অনেক দেশ ইতিমধ্যে ভ্রমণে কড়াকড়ি আরোপ করেছে। এবার প্রাণঘাতী এই ভাইরাসের ভয়ে ওমরাহ যাত্রী ও মসজিদে নববী ভ্রমণ সাময়িক স্থগিত করেছে সৌদি আরব। বৃহস্পতিবার (২৭ ফেব্রুয়ারি) দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এক বিবৃতিতে এ তথ্য জানায়।

বিবৃতিতে বলা হয়, করোনা ভাইরাস ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কায় যারা ওমরাহ করতে চাচ্ছেন বা মদিনায় মসজিদে নববীতে যেতে চাচ্ছেন তাদের প্রবেশাধিকার অস্থায়ীভাবে স্থগিত করা হয়েছে সৌদি আরব। আজ বৃহস্পতিবার (২৭ ফেব্রুয়ারি) সৌদি আরবের বহুল প্রচারিত ইংরেজি দৈনিক আরব নিউজ এবং সৌদি গেজেট দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের বরাত দিয়ে এ বিষয়ে সংবাদ প্রকাশ করে।

ইতিমধ্যে মধ্যপ্রাচ্যের কয়েকটি দেশ করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে। এর মধ্যে সবচেয়ে বেশি ইরানে, দেশটিতে মৃত্যু হয়েছে ১৬ জনের। এছাড়া আরব আমিরাতে ১৩,  কুয়েতে ৯, বাহরাইনে ৮, ইরাকে ৫ জন প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন।

বিশ্বের বিভিন্ন দেশে দ্রুত ছড়িয়ে পড়ছে করোনা ভাইরাস। বিভিন্ন দেশে আক্রান্ত ও মৃত্যুর সংখ্যা বাড়ছেই। এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে ৮০ হাজার ৯৬৭ জন এবং মারা গেছে ২৭৬৩ জন। এখন পর্যন্ত এই ভাইরাসটি বিশ্বের অন্তত ৪৩টির বেশি দেশ ও অঞ্চলে ছড়িয়ে পড়েছে।

চীনের বাইরে করোনাভাইরাসে সবচেয়ে বেশি আক্রান্তের সংখ্যা দক্ষিণ কোরিয়ায়। দেশটিতে এ পর্যন্ত এক হাজার ১৪৬ জন এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। এরমধ্যে মারা গেছেন কমপক্ষে ১১ জন।

এশিয়ার পর এবার ইউরোপের দেশগুলোতে ভয়াবহ আকার ধারণ করেছে করোনা ভাইরাস। এরমধ্যে ইতালিতে করোনার প্রাদুর্ভাব ভয়াবহ পরিস্থিতি বিরাজ করছে। গত মঙ্গলবার পর্যন্ত দেশটিতে এখন পর্যন্ত ১১ জনের মৃত্যু হয়েছে। আক্রান্ত হয়েছেন ৩২২ জন।

অপরদিকে মধ্যপ্রাচ্যের দেশ ইরানে করোনা সংক্রমিত হয়ে এখন পর্যন্ত ১৬ জনের মৃত্যু হয়েছে। এছাড়া প্রাণঘাতী এই ভাইরাসে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা এখন ৯৫ জন। তবে মার্কিন সংবাদ সংস্থা এপি ও দৈনিক ওয়াশিংটন পোস্ট এবং কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আলজাজিরা বলছে ইরানে মৃতের সংখ্যা আরও বেশি, সেই সংখ্যা অর্ধশত ছাড়িয়ে যেতে পারে।

জাপানি প্রমোদতরী ডায়মন্ড প্রিন্সেসের ৬৯১ যাত্রী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। মৃত্যু হয়েছে চার যাত্রীর। জাপানের বিভিন্ন স্থানে ১৫৯ জন এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে।

সিঙ্গাপুরে আক্রান্তের সংখ্যা ৯১। হংকংয়ে আক্রান্ত ৮৫ এবং মৃত্যু হয়েছে দুজনের। যুক্তরাষ্ট্রে এখন পর্যন্ত আক্রান্তের সংখ্যা ৫৩, থাইল্যান্ডে ৩৭, অস্ট্রেলিয়ায় ২৩, মালয়েশিয়ায় ২২, জার্মানিতে ১৮ এবং ভিয়েতনামে ১৬। এছাড়া ফ্রান্সে এখন পর্যন্ত ১৪ জন এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন এবং মারা গেছেন একজন।ৎ

অপরদিকে ফিলিপাইনে এই ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা তিন এবং মৃত্যু হয়েছে একজনের, ভারতে ৩, অস্ট্রিয়ায় ২, ওমানে ২, রাশিয়ায় ২, আফগানিস্তানে ১, আলজেরিয়ায় ১, বেলজিয়ামে ১, কম্বোডিয়ায় ১, ক্রোয়েশিয়ায় ১, মিসরে ১, ফিনল্যান্ডে ১, ইসরায়েলে ১, লেবানন ১ এবং নেপালে একজন এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন।

এছাড়া রোমানিয়ায় ১, শ্রীলঙ্কায় ১, সুইডেনে ১, সুইজারল্যান্ডে ১ এবং অস্ট্রিয়া একজন এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। তাইওয়ানে ৩১ জন এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন এবং মারা গেছেন একজন।