করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে যেসব সতর্কতা মেনে চলা চলা জরুরি

চীনে প্রায় মহামারি আকার ধারণ করেছে করোনাভাইরাস। চীন থেকে এই ভাইরাস বিশ্বময় ছড়িয়ে পড়ছে। এই ভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে ইতোমধ্যে বিশ্বব্যাপী জরুরী অবস্থা ঘোষণা করেছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (WHO)।

হু থেকে প্রকাশিত বিশেষ স্বাস্থ্য বার্তায় বলা হয়েছে-

করোনা ভাইরাস ব্যাকটেরিয়াল ইনফেকশান না। কাজেই এ্যান্টিবায়োটিকে ইহার নিরাময় হবেনা।

নিজেকে নিরাপদ রাখার জন্য প্রয়োজনীয় পরামর্শঃ

যত বেশী পারেন আপনার কণ্ঠনালীকে আদ্র করে রাখুন। কোনো অবস্থাতেই শুষ্ক হতে দেয়া যাবে না।

কাজেই তৃষ্ণা পেলেই পানি পান করুন। কণ্ঠনালী যদি শুষ্ক থাকে তবে মাত্র দশ মিনিটেই আপনি এই ভাইরাসে আক্রান্ত হতে পারেন।

৫০ থেকে ৮০ সিসি হালকা গরম পানি পান করুন (বড়দের জন্য)। ৩০ থেকে ৫০ সিসি ছোটদের জন্য।

যখনই আপনি মনে করছেন- আপনার কন্ঠনালী শুষ্ক হয়ে আসছে, অপেক্ষা না করে দ্রুত পানি পান করুন।

সবসময় হাতের কাছে বিশুদ্ধ পানি রাখুন।

একবারে প্রচুর পানি পান করে লাভ নেই। বরং অল্প অল্প বিরতিতে অল্প অল্প পান করে কণ্ঠনালীকে সব সময় আদ্র করে রাখুন।

মার্চ মাসের শেষ পর্যন্ত এই নিয়মগুলো মেনে চলুন।

জনাকীর্ণ জায়গা থেকে দূরে থাকুন।

ট্রেন, বাস এবং যেকোনো পাবলিক ট্রান্সপোর্টেশানে মাস্ক পরুন।

ভাজা পোড়া খাবার এড়িয়ে চলুন।

যে সব খাবারে প্রচুর ভিটামিন সি আছে সেই খাবারগুলো বেশী করে খান।

লক্ষণসমূহ:
১) ঘন ঘন ঊচ্চ তাপমাত্রায় জ্বর।
২) জ্বরের পর দীর্ঘায়িত কাশি।
৩) শিশুদের হওয়ার প্রবণতা বেশী।
৪) বয়ষ্কদের শারীরিক অসুস্থতাবোধ করা, মাথাব্যথা, বিশেষ করে শ্বাস-প্রশ্বাস জনিত রোগে ভোগা ।

এই রোগ অত্যন্ত সংক্রামক। এই রোগে আক্রান্ত হওয়ার আগে সর্বোচ্চ প্রস্তুতি নিন।
জানুন, নিজেকে আপডেট রাখুন এবং অন্যকে জানান।