বাড়ী কেনায় ক্রেতার বাধ্যবাধকতা

লিখেছেন রিয়েল্টর শিহাব উদ্দিন

বাড়িয়ে কেনাবেচায় ক্রেতা, বিক্রেতা এবং একাজে সহায়তায় নিযুক্ত ব্রোকারের বেশ কিছু বাধ্যবাধকতা আছে। ক্রেতাদের জন্য প্রযোজ্য বাধ্যবাধকতাসমূহ এখানে তুলে ধরা হলো|

ডাউন-পেমেন্ট পরিশোধ : বাড়ী কেনার ক্ষেত্রে ক্রেতার সবচেয়ে বড় বাধ্যবাধকতা হচ্ছে ডাউনপেমেন্ট পরিশোধ। রেগুলেশন অনুযায়ী ২০% ডাউন পেমেন্ট সাধারণত বিধান। ২০% ডাউন পেমেন্ট দিলে ৪:৫ লোন- টু -ভ্যালু অনুপাতের কারণে মর্টগেজ অনুমোধনকারী প্রতিষ্টান নিজেদের নিরাপদ মনে করে। ডাউন-পেমেন্ট এর চেয়ে কম হলে আবাসিক প্রপার্টিতে CMCH ইন্সুরেন্স প্রিমিয়াম পরিশোধ করে কানাডিয়ান সিটিজেন এবং পার্মানেন্ট রেসিডেন্ডদের ক্ষেত্রে ৫% দিয়েও বাড়ী কেনার সুযোগ রয়েছে ফার্স্ট টাইম বাইয়ারের ক্ষেত্রে। তবে কার্যত এই নিয়ম প্রযোজ্য থাকলেও বাস্তবতা হচ্ছে ৫% ডাউনপেমেন্ট পরিশোধ করে বাড়ী কেনা বাস্তবে খুই কঠিন। কারণ ৪০-৫০% ডাউনপেমেন্ট দিয়ে বাড়ী কেনার লোকের অভাব নেই এই মুহূর্তে মন্ট্রিয়লে। কোনো প্রোপার্টিতে কারো মর্টগেজ অগ্রাহ্য হলে পরের সপ্তাহেই একই প্রোপার্টিতে অধিকতর ডাউনপেমেন্ট পরিশোধ  করে  মর্টগেজের আবেদন আসতেছে অন্য ক্লায়েন্ট থেকে। ২য় এবং ৩য় প্রপার্টি কেনার ক্ষেত্রে ডাউনপেমেন্ট অবশ্য বেশী হয়। তবে ক্ষেত্রবিশেষে এগুলিতে শিথিলতার সুযোগ আছে।

কানাডিয়ান সিটিজেন এবং পার্মানেন্ট রেসিডেন্ডদের এই দুই সস্ট্যাটাসের বাইরে কেউ বাড়ী কিনতে গেলে তার জন্য ৩৫% ডাউন-পেমেন্ট প্রযোজ্য হবে। ব্যতিক্রম শুধু BMO-তে। স্থায়ী চাকরি এবং ভালো পারিবারিক আয় প্রদর্শন করে BMO থেকে ১০% ডাউনপেমেন্ট পরিশোধ করে বাড়ীর মর্টগেজ অনুমোধনের সুযোগ আছে।

ক্রেডিট স্কোর: Equifax ক্রেডিট রেটিংয়ে ৬৬০ থেকে ৭২৪ পর্যন্ত ক্রেডিট স্কোরকে ‘ভাল’, ৭২৫ থেকে ৭৫৯ ‘খুব ভাল’ এবং ৭৬০ বা তারও বেশি স্কোরকে “চমৎকার’ বলে বিবেচনা করা হয়। উচ্চতর ক্রেডিট স্কোরগুলির অর্থ ক্রেতা অতীতে ঋণ পরিশোধে দায়িত্বশীল আচরণের পরিচয় দিয়েছেন, যা তাকে ভালো রেটে মর্টগেজে পেতে সহায়তা করবে। ৬৬০ এর নীচে ক্রেডিট স্কোরকে ঋণদাতা প্রতিষ্টানগুলি ‘ঝুঁকিপূর্ণ’ মনে করে। এক্ষেত্রে মর্টগেজ পাওয়ার সম্ভাবনা কম হতে পারে এবং পেলেও সুদের হার স্বাভাবিকের চেয়ে অনেক বেশী হবে। ৫৬০ এর নীচের স্কোরকে সাধারণত “poor” বলে গণ্য করা হয় যা ভাল মর্টগেজে পাওয়ার ক্ষেত্রে প্রতিবন্ধক হয়ে দাড়ায়। এক্ষেত্রে ক্রেতাকে অতি উচ্চ হরে “হাউজ লোন” এর শরণাপন্ন হতে হয়।

ওয়েলকাম ট্যাক্স: কুইবেকের কোথাও বাড়ী কেনার অব্যবহিত পর বাড়ীর মূল্যের ১-২.৫% ল্যান্ড ট্রান্সফার বা ওয়েলকাম ফি পরিশোধ করতে হয়। সিটি এবং বাড়ীর ক্রয়মূল্যের ভেদে এই এই ফি ভিন্ন হয়ে থাকে|

হোম ইন্সুরেন্স: পূর্ণ কাভারেজ নিলে হোম ইন্সুরেন্স সাধারণত মাসে ১০০-২০০$ হয়। স্বাভাবিক কারণেই সিঙ্গেল হোমের চেয়ে রেভিনিউ প্রোপার্টিতে ইন্সুরেন্স বেশী হয়। পুরো প্রোপার্টিতে সামষ্টিকভাবে কন্ডোর ইন্সুরেন্স হিসেবে করা হয় বলে, এককভাবে কন্ডোর প্রিমিয়ামটা অবশ্য সিঙ্গেল হোমে ও রেভিনিউ প্রপার্টির চেয়ে অনেক কম হয়।

মিউনিসিপ্যাল ট্যাক্স:, “মিউনিসিপ্যাল ট্যাক্স” নামে পরিচিত “প্রোপার্টি ট্যাক্স” কুইবেকের সিটিগুলির আয়ের প্রধান উৎস। সিটির প্রতিটি বিভাগের জন্য পরিকল্পিত ব্যয় অনুসারে এটা প্রতিষ্ঠিত হয়। এর হারগুলি প্রতি বছরে সিটির অপারেটিং বাজেট দ্বারা বার্ষিকভাবে নির্ধারিত হয়, যা মিউনিসিপাল কর্তৃক আগের বছরের ডিসেম্বর মাসে গৃহীত হয়েছিল| বাড়ীর মিউনিসিপাল ইভালুয়েশন ভ্যালুর উপর নির্ভর করে। এক্ষেত্রে বাড়ীর ক্রয়মূল্য কিংবা মার্কেট ভ্যালু বিবেচনায় আসে না|

স্কুল কর: স্কুল বোর্ডগুলির বার্ষিক আয়ের 12% আসে স্কুল কর থেকে| বাড়ীর মালিকদের অবশ্যই স্কুল কর প্রদান করতে হয়। স্কুল ট্যাক্স যদি ৩০০ ডলার বা তার বেশি হয় তবে এটি দুটি সমান কিস্তিতে পরিশোধ করা যায়। প্রথম কিস্তি আগষ্টে এবং দ্বিতীয় কিস্তি অক্টবোর মাসে প্রদেয়|

নোটারী: বাড়ী ক্রেতাকে নোটারী করণের ফি পরিশোধ করতে হয়। আবাসিক বাড়ীর ক্ষেত্রে এই ফি ১০০০-১২০০$ হয়ে থাকে। তবে ২০% ডাউন পেমেন্ট ২০% বা তার বেশী পরিশোধ করে বাড়ী কিনলে মর্টগেজ অনুমোধনকারী প্রতিষ্ঠান এই ফী পরবর্তীতে ক্রেতাকে ফেরত দিয়ে দেয়।

বাড়ী কেনায় ক্রেতাদের মোটামোটি এই বাধ্যবাধকতাগুলির মধ্য দিয়ে যেতে হয়। বাড়ী কেনার পর মর্টগেজ পরিশোধ, রক্ষণাবেক্ষণ, বরফ পরিষ্কার, আগাছা পরিষ্কারসহ আরো অনেক বাধ্যবাধকতা আছে|

 

লেখক : প্রকৌশলী শিহাব উদ্দিন, 

রিয়েল এস্টেট ব্রোকার , (৫১৪) ৩৬৮ ৯০০০