করোনা ঝামেলায় জাহাজে কাঁদছেন ক্যাপ্টেন

অনেক চেষ্টা করেও দেশে ফিরতে না পারায় মানবেতর জীবন-যাপন করছেন জাপান উপকূলে আটকে থাকা ‘ডায়মন্ড প্রিসেন্স’ জাহাজের কর্মী-যাত্রীরা। জাহাজটিতে কাজ করা বিনয় কুমার নামের এক ভারতীয় গণমাধ্যমকে তাদের দুর্দশার বর্ণনা দিয়েছেন।

বিনয় জানিয়েছেন, শনিবার নতুন করে ওই জাহাজের ১৯ যাত্রী করোনাভাইরাসে (কোভিড-১৯) আক্রান্ত হয়েছেন বলে সন্দেহ করছেন চিকিৎসকেরা। তার কথায়, ‘এ দিন ক্যাপ্টেন কান্নায় ভেঙে পড়ে বলেন তার মা অসুস্থ। কিন্তু তিনিও বাড়ি ফিরতে পারছেন না।’

ভারতীয় কেবিন ক্রু বিনয় আরও জানান, ওই জাহাজের ৪০ জন ভারতীয় কর্মীকে দেশে ফেরাতে সংস্থার পক্ষ থেকে টিকিট করে দেওয়া হয়েছিল। সবাই তা হাতে পেয়েছেন। কিন্তু আদৌও ফিরতে পারবেন কিনা, তা অনিশ্চিত।

এ দিন জাহাজে ঘোষণা করা হয়েছে, ১৮ ফেব্রুয়ারি থেকে যাত্রীদের দফায় দফায় মেডিকেল পরীক্ষা করা হবে। সন্দেহজনক কিছু না মিললে যাত্রীদের নিচে নামানো হবে। তবে কারও দেহে করোনাভাইরাসের (কোভিড-১৯) উপস্থিতি মিললে জাপানেই তাদের চিকিৎসার ব্যবস্থা করা হবে। গোটা প্রক্রিয়া সম্পূর্ণ করতে কয়েক দিন সময় লাগবে।

জাহাজে ২৬০০ জন যাত্রী, ১০৪০ জন বিভিন্ন দেশের কর্মী রয়েছেন। বেশির ভাগই জাপান, ফিলিপাইন, মালয়েশিয়া, এবং অস্ট্রেলিয়ার। কর্মীদের মধ্যে ভারতের ১৬০ জন। বাঙালি আছেন ৬ জন।