কানাডায়ও বিপদে হ্যারি-মেগান!

ব্রিটেনের রাজকুমার হ্যারি এবং তার স্ত্রী মেগান মার্কলের নিরাপত্তার জন্য আর্থিক ব্যয়ভার বহন করতে চান না কানাডার সংখ্যাগরিষ্ঠ মানুষ। সম্প্রতি একটি সমীক্ষায় উঠে এসেছে এমনই চিত্র। ৭৭ শতাংশ মানুষ বলেছেন, ডিউক আর ডাচেস অব সাসেক্স কানাডায় রানির প্রতিনিধি হিসেবে থাকছেন না। তাই তাদের নিরাপত্তায় অর্থব্যয় করার প্রয়োজন নেই কানাডীয় নাগরিকদের। কানাডায় পার্লামেন্ট এবং রাজতন্ত্র হাত ধরাধরি করে চলে। রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথকে প্রধান শাসক গণ্য করা হয়। তাই এখানকার ১৯ শতাংশ কানাডীয়ের মত, রাজকুমার ও তার পরিবারের নিরাপত্তা ব্যয়ভার বহন করায় আপত্তি তোলার প্রশ্ন নেই। তবে কানাডায় থাকাকালীন রাজকুমারদের নিরাপত্তার ভার কারা বহন করবে, তা নিয়ে এখনো সরকারিভাবে কোনো ঘোষণা হয়নি। আলোচনা চলছে_ এইটুকু ইঙ্গিতই দিয়েছে প্রশাসন |কানাডার দুই তৃতীয়াংশেরও বেশি মানুষ মনে করেন, হ্যারি এবং তার পরিবারের ব্যক্তিপরিসরের অধিকার রক্ষা করার ক্ষেত্রে ব্রিটেনের তুলনায় অনেক বেশি সহযোগিতা করবে কানাডা। তবে ভ্যাঙ্কুবর দ্বীপের ভিক্টোরিয়ায় থাকা হ্যারি-মেগান ঝুঁকি নিচ্ছেন না। গত মাসেই তাঁরা স্থানীয় সংবাদমাধ্যমকে একটি আইনি নোটিস পাঠিয়েছেন। ছেলে আর্চিকে নিয়ে মেগান এক দিন কুকুর নিয়ে ঘুরতে বেরিয়েছিলেন। সেই সময়ে অনুমতি ছাড়া ছবি তোলা হয় বলে অভিযোগ।