৫১ শতাংশ আমেরিকান ট্রাম্পের অপসারণ চান

অর্ধেকের বেশি (৫১ শতাংশ) আমেরিকান বলছেন, সিনেটের উচিত রাষ্ট্রপতি ডোনাল্ড ট্রাম্পকে দোষী সাব্যস্ত করা এবং আসন্ন অভিশংসনের বিচারে তাকে পদ থেকে অপসারণ করা। অন্যদিকে ট্রাম্পের পক্ষাবলম্বন করার কথা বলেছেন ৪৫ শতাংশ মানুষ।

সিএনএনের নতুন এক জরিপে এই এই ফলাফল পাওয়া গেছে। প্রেসিডেন্টের ক্ষমতার অপব্যবহারের অভিযোগ নিয়ে মার্কিন নাগরিকদের মনোভাব জানতে টেলিফোনে এই জরিপ চালানো হয়।

জরিপে অংশ নেওয়া ১০ জনের মধ্যে প্রায় সাতজন (৬৯ শতাংশ) বলেছেন, আসন্ন বিচারে নতুন সাক্ষীদের সাক্ষ্য দেওয়া উচিত, যারা পার্লামেন্টের অভিশংসন তদন্তে সাক্ষ্য দেননি।

ডেমোক্র্যাটরা সিনেটের বিচারে সাক্ষ্য দেওয়ার জন্য কমপক্ষে চারজন রিপাবলিকানকে রাজি করানোর চেষ্টা করছেন। যদিও রিপাবলিকানরা দুই ভাগে ভাগ হয়ে গেছেন, তাদের  ৪৮ শতাংশ নতুন সাক্ষী চাইলেও ৪৪ শতাংশ তা চান না।

অভিশংসনের নিবন্ধটি সিনেটে পাঠানোর পরে এই জরিপটি প্রথম জাতীয় টেলিফোন জরিপ।

নতুন জরিপে অনুযায়ী, ট্রাম্প যে সকল অভিযোগে বিচারের মুখোমুখি হবেন তার প্রতিটি সত্য বলে মনে করেছেন আমেরিকানরা। জরিপে অংশ নেওয়া ৫৮ শতাংশ বলছেন ব্যক্তিগত রাজনৈতিক সুবিধার জন্য ট্রাম্প রাষ্ট্রপতি পদের অপব্যবহার করেছেন। এছাড়া ৫৭ শতাংশ বলছেন তিনি অভিশংসন তদন্ত প্রতিনিধিদের কাজে বাধা দিয়েছেন।

ট্রাম্পের বিরুদ্ধে অভিশংসনের দুটি অভিযোগ আনা হয়েছে। একটি হচ্ছে, অভিশংসন তদন্ত প্রক্রিয়ায় সহযোগিতা করতে অস্বীকৃতি জানানো, সাক্ষ্য দিতে তার কর্মীদের বাধা দেওয়া এবং তথ্য প্রমাণ ধামাচাপা দেওয়ার মাধ্যমে কংগ্রেসের কাজকে বাধাগ্রস্ত করা। অপরটি হচ্ছে, রাজনৈতিক প্রতিপক্ষ ২০২০ সালের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ডেমোক্র্যাট প্রার্থী জো বাইডেন ও তার ছেলের বিরুদ্ধে ইউক্রেনের একটি গ্যাস কোম্পানির দুর্নীতির অভিযোগ তদন্তে ইউক্রেনের প্রেসিডেন্টকে ফোন করে চাপ দেওয়া।