বার্ষিক সাধারণ সভায় প্রতিষ্ঠাতাদের সম্মাননা প্রদান করল সিলেট জেলা সমিতি

লিখেছেন শিহাব উদ্দিন

সিলেট জেলা সমিতি অব মন্ট্রিয়ল, কানাডার বার্ষিক সাধারণ সভা অনুষ্টিত হল গত পহেলা ডিসেম্বর রোববার সন্ধ্যায়| সমিতির সভাপতি জনাব আব্দুল হাইয়ের সভাপতিত্বে স্থানীয় পার্ক ভিউ রিসিপশন হলে অনুষ্টিত সাধারণ সভার অন্যতম আকর্ষণ ছিল সমিতির প্রতিষ্টাতা সদস্যদের সম্মাননা প্রদান।

মন্ট্রিয়লে সিলেট সমিতি প্রতিষ্টা করে যারা এর কার্যক্রমে ওতপ্রোতভাবে জড়িত ছিলেন, সেই সতেরজন নিবেদিতপ্রাণ সদস্যদের অবদান শ্রদ্ধচিত্তে স্মরণ করে তাদের হাতে সম্মান সূচক ক্রেস্ট প্রদান করা হয়।যাদেরকে সম্মান প্রদান করা হয় তাঁরা হচ্ছেন প্রতিষ্টা সভাপতি জনাব মুহাম্মদ রহিম উদ্দিন, বীর মুক্তিযোদ্ধা মরহুম ক্যাপ্টেন আপ্তাব আলী (বীর বিক্রম, বীর উত্তম), মরহুম আসহাবুল ইসলাম চৌধুরী, মরহুম নুরুল ইসলাম চৌধুরী, মরহুম আব্দুল খালিক, মোঃ নাজমুল ইসলাম, মরহুম আফজাল বখত রঞ্জু, মরহুম মোঃ জমির উদ্দিন, মোঃ এজাজ, নিমার আলী, মোঃ মারুফ বখত, সৈয়দ মাহবুব ফারুক, আব্দুর রউফ খান, নাজির উদ্দিন আহমেদ, লেখক আব্দুল হাসিব, জয়নাল আহমেদ এবং আলহাজ আব্দুল মালিক| এছাড়া বাংলা একাডেমী থেকে গৌরবজনক একুশে পুরস্কার প্রাপ্তিতে সমিতির অন্যতম সদস্য জনাব তাজুল মোহাম্মদকে বিশেষ ভাবে সম্মানিত করা হয়।

তিন পর্বে অনুষ্টিত সভার প্রথম পর্ব সঞ্চালনা করেন সাধারণ সম্পাদক আব্দুল সবুর ও যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জয়নাল উদ্দিন। উদ্বোধনী এ পর্বে সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল সবুর বিগত এক বছরের কার্যক্রমের বিবরণী তুলে ধরেন। জনাব সবুর জানান যে “প্রস্তাবিত সিলেট ভবন” নির্মাণের লক্ষ্যে প্রাথমিক সমীক্ষার দায়িত্ব দেয়া হয়েছে সংগঠনের প্রচার ও সাহিত্য সম্পাদক রিয়েল্টর প্রকৌশলী শিহাব উদ্দিন এবং ক্রীড়া সম্পাদক কবির খানকে। বার্ষিক প্রতিবেদনের পর সমিতির অর্থ সম্পাদক জনাব তোফায়েল আহমেদ আসলাম সমিতির আর্থিক বিবরণী তুলে ধরেন। এছাড়া এ পর্বে স্বাগত বক্তব্য রাখেন উপদেষ্টা ইতরাদ জুবেরী সেলিম ও এডভোকেট রতন মজুমদার, সহ: সভাপতি আব্দুল হান্নান, এনাম আহমেদ, মোস্তাহিদ আহমেদ মকু ও জয়নাল আবেদীন জামিল, সাংগঠনিক সম্পাদক করিম উল্লাহ, দপ্তর সম্পাদক তৌফিক হক, সাংস্কৃতিক সম্পাদক  রফিকুল হক দোলক এবং সাহিত্য ও প্রচার সম্পাদক শিহাব উদ্দিন। নতুন প্রজন্মের পক্ষে বক্তব্য রাখেন মাধ্যমিক পর্যায়ে গভর্নর জেনারেল গোল্ড মেডেল পদকপ্রাপ্ত বৈমানিক জাকির হাই।

২য় পর্ব তথা সম্মাননা প্রদান পর্ব পরিচালনা করেন সংগঠনের সভাপতি জনাব আব্দুল হাই। এ পর্বে সংক্ষিপ্ত স্মৃতিচারণমূলক বক্তব্য রাখেন সম্মাননা গ্রহণকারী প্রতিষ্ঠাতা সদস্যবৃন্দ এবং মরণোত্তৰ সম্মাননা গ্রহণকারী সদস্যদের পক্ষে উপস্থিত প্রতিনিধিবৃন্দ। তাদের বক্তব্যে সংগঠনের কার্যক্রমে সন্তুষ্টি প্রকাশ পায়।

সহ: সভাপতি জয়নাল আবেদীন জামিলের উপস্থাপনায় অনুষ্টিত শেষ পর্বে সাংষ্কৃতিক অনুষ্টান এবং আপ্যায়ন অনুষ্টিত হয়। এ পর্বে সিলেটি সংগীত পরিবেশন করেন জনপ্রিয় শিল্পী রুমা কর এবং জুবায়ের টিপু। এতে সিলেট ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশের বিভিন্ন অঞ্চল থেকে আসা উল্লেখযোগ্য সংখ্যক বিশিষ্ট জন।