ইলিশ শিকারকে কেন্দ্র করে গোলাগুলিতে বিএসএফ সদস্য নিহতের দাবি

রাজশাহীর পদ্মা নদীতে ইলিশ মাছ শিকারকে কেন্দ্র করে বাংলাদেশের অভ্যন্তরে অনুপ্রবেশকারী আটক এক ভারতীয় জেলেকে ছিনিয়ে নেওয়ার চেষ্টাকালে বিজিবি-বিএসএফের গোলাগুলিতে এক বিএসএফ সদস্য নিহত হয়েছেন বলে দাবি করেছে ভারতীয় পক্ষ।

ভারতের গণমাধ্যম এনডিটিভি জানাচ্ছে, নিহত ওই বিএসএফের নাম বিজয় ভান সিংহ। তিনি হেড কনস্টেবল ছিলেন। বয়স হয়েছিল ৫০। তার বাড়ি উত্তরপ্রদেশের ফিরোজাবাদ।

বৃহস্পতিবার বেলা ১১টার দিকে রাজশাহীর চারঘাট উপজেলা সদরের বালুঘাট এলাকায় পদ্মা ও শাখা বড়াল নদের মোহনায় এ ঘটনা ঘটে।

চারঘাট উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা আরিফুল ইসলাম বলেন, ২২ দিনের নিষেধাজ্ঞার মধ্যে তারা নিয়মিত পদ্মা নদীতে অভিযান পরিচালনা করেন। যেহেতু চারঘাট একটি সীমান্ত এলাকা, এ জন্য অভিযানে বিজিবির সদস্যদের সঙ্গে নিতে হয়। বুধবার ভোর পাঁচটার দিকে তারা অভিযানে বের হয়েছিলেন। আগের দিন রাত ১২টা পর্যন্ত তারা অভিযান পরিচালনা করেছেন। রাতে চারঘাট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) নাজমুল হকও তাদের সঙ্গে ছিলেন।

বৃহস্পতিবার রাতে বিজিবির রাজশাহী ব্যাটালিয়নের (১ বিজিবি) সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, সকাল ১০টা ৪০ মিনিটে বাংলাদেশের অভ্যন্তরে চারঘাট থানা এলাকায় মৎস্য কর্মকর্তার উপস্থিতিতে পদ্মায় অভিযান পরিচালনার সময় তিন জেলেকে আটক করার চেষ্টা করা হয়। তাদের মধ্যে দুজন পালিয়ে যান এবং একজনকে আটক করে নদীর এপারে নিয়ে আসা হয়। আটক ব্যক্তি ভারতীয় নাগরিক বলে বিজিবি নিশ্চিত হয়। কিছুক্ষণ পর বিএসএফের চার সদস্যের একটি টহল দল স্পিডবোট নিয়ে বাংলাদেশের অভ্যন্তরে বিজিবি টহল দলের কাছে আসে এবং আটক ভারতীয় নাগরিককে ছেড়ে দিতে বলে। আটক ভারতীয় নাগরিককে পতাকা বৈঠকের মাধ্যমে হস্তান্তর করা হবে বলে জানালে তারা ভারতীয় নাগরিককে ছিনিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করেন। এতে বিজিবি সদস্যরা বাধা দিলে বিএসএফ সদস্যরা বিজিবির ওপর ছয় থেকে আটটি গুলি করেন। আত্মরক্ষার জন্য বিজিবির সদস্যরা গুলি চালালে বিএসএফ সদস্যরা গুলি করতে করতে দ্রুত স্থান ত্যাগ করেন। আটক ভারতীয় নাগরিককে চারঘাট থানায় হস্তান্তরের কার্যক্রম প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

এ ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে বৃহস্পতিবার বিকেল ৪টা ৪৫ মিনিট থেকে ৫টা ৫০ মিনিট পর্যন্ত বিএসএফ রাজশাহী ব্যাটালিয়ন ও ১১৭ বিএসএফ ব্যাটালিয়নের মধ্যে পদ্মার চর শাহরিয়ার নামক স্থানে ব্যাটালিয়ন অধিনায়ক পর্যায়ে পতাকা বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।

বৈঠকে বিএসএফ দাবি করে, তাদের একজন সদস্য নিহত এবং একজন সদস্য আহত হয়েছেন। এ ব্যাপারে উভয় পক্ষই নিজ নিজ অবস্থান থেকে বিষয়টি তদন্ত করে ব্যবস্থা নিতে একমত হয়। এ ছাড়া আরও আলোচনার জন্য খুব শিগগিরই পতাকা বৈঠক করার বিষয়ে উভয় পক্ষ একমত হয়।