নিশ্চিন্তে পাবজি খেলতে বাবাকে কুপিয়ে হত্যা, পা-মাথা দ্বিখণ্ডিত

গেম খেলতে বাধা দেওয়ায় বাবাকে কুপিয়ে হত্যা করেছে ছেলে। অনলাইন গেম পাবজিতে আসক্ত ছিল ওই তরুণ। ভারতের কর্ণাটকের বেলাগাভি জেলায় এ ঘটনা ঘটে।

সোমবার ইন্ডিয়া টাইমস জানায়, ছেলে রঘুবীর কাম্বারের অনলাইন গেম আসক্তিতে অসন্তুষ্ট ছিলেন অবসরপ্রাপ্ত পুলিশ সদস্য শঙ্করাপ্পা কাম্বার। প্রায়ই এ নিয়ে বাবা-ছেলের মধ্যে বিবাদ সৃষ্টি হতো।

রবিবার রাতেও ছেলেকে সারাক্ষণ গেম খেলতে নিষেধ করেন। এতেই দুজনের মধ্যে কথা-কাটাকাটি ও ঝগড়ার সৃষ্টি হয়।

একপর্যায়ে রঘুবীর ক্ষিপ্ত হয়ে ধারালো অস্ত্র দিয়ে শঙ্করাপ্পাকে আঘাত করে। শান্তিমতো পাবজি খেলতে বাবাকেই হত্যা করে বসে সে।

৬৫ বছর বয়সী বাবাকে কুপিয়ে হত্যা করেই ক্ষান্ত হয়নি ছেলে। তার মাথা ও পা কেটে শরীর থেকে আলাদা করে ফেলে সে।

এদিকে অভিযুক্ত ২৫ বছর বয়সী রঘুবীরকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে বলে জানা গেছে।

এর আগে মহারাষ্ট্রে পাবজি খেলতে নিষেধ করায় বড়ভাইকে হত্যা করেছিল ১৫ বছরের এক কিশোর।